• শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮
  • ||

দেশে ১০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ভ্যাকুয়াম ক্লিনার

প্রকাশ:  ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ১১:১৪ | আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ১১:৫৭
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

চলমান বৈশ্বিক মহামারি পরিস্থিতিতে ধুলা-বালি এবং ভাইরাস থেকে নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে ঘরের মেঝে এবং গালিচা নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার বিকল্প নেই। তবে, এগুলো নিয়মিত পরিপাটি করার কাজটি যথেষ্ট সময় সাপেক্ষ এবং কষ্টের কাজ।

আপনি যদি অল্প পরিশ্রমে ও স্বল্প সময়ে আপনার বাড়ি বা অফিসের মেঝেটি সঠিকভাবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে চান তাহলে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার কিনে নিতে পারেন। বাংলাদেশে ১০ হাজার টাকার মধ্যে কোন কোন ব্রান্ডের সেরা ভ্যাকুয়াম ক্লিনার পাওয়া যায় তা জানতে পড়ে দেখতে পারেন এ নিবন্ধটি।

সম্পর্কিত খবর

    সেরা ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্র্যান্ড

    বেশ কয়েকটি দেশিয় এবং আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড বাংলাদেশে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার বিক্রি করে। স্থানীয় ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে- ওয়াল্টন মানসম্পন্ন ভ্যাকুয়াম ক্লিনার তৈরি করে। এর বাইরে সানফোর্ড, ব্ল্যাক অ্যান্ড ডেকার, হিটাচি, এলজি, প্যানাসনিক, ফিলিপস, স্যামসাং, শার্প, বেকো এবং আরও অনেক জনপ্রিয় আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার পাওয়া যায়। ট্রান্সকম ডিজিটাল, বেস্ট ইলেক্ট্রনিক্স, দারাজ, এস্কয়ার ইলেক্ট্রনিক্স এবং এমকে ইলেকট্রনিক্সের মতো ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম থেকে এসব ব্রান্ডের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার কেনা যাবে।

    ৬ হাজার টাকার কম দামের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার

    ভ্যাকুয়াম ক্লিনার কেনার জন্য আপনার বাজেট যদি ৬ হাজার টাকার নিচে হয় তবে আপনি ওয়াল্টনের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার কেনার কথা ভাবতে পারে।

    ওয়াল্টন ডব্লিউএভিসি-এলএস০৬

    এই ভ্যাকুয়াম ক্লিনারটিতে দেড় লিটার ধুলা পরিষ্কারের ক্ষমতাসহ শক্তিশালী সাইক্লোনিক ডিজাইন পাবেন। এতে ধাতবের তৈরি টিউব ডিজাইনের একটি অপসারণযোগ্য ফিল্টার আছে। এর এমওপি মাথার হেডটি স্পট ক্লিনিংয়ের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে। ওয়াল্টনের বৈদ্যুতিক এ ফ্লোর ক্লিনারটির ১০০০ ওয়াট পর্যন্ত। এতে থাকা ক্রেভাইস ডিভাইসটি মেঝেতে থাকা শক্ত দাগ পরিষ্কারে সহায়তা করে।

    ওয়াল্টনের এ ফ্লোর ক্লিনারটি হ্যান্ডি এবং স্টিকি দুইভাবেই ব্যবহার করা যেতে পারে। এর সর্বোচ্চ প্রেসারের লেভেল হলো ১৯ থেকে ২২ কেপিএ। এর শব্দ লেভেল ৭৫ডিবির নিচে। এই ওয়ালটন ভ্যাকুয়াম ক্লিনারটি ২২০ ভোল্ট এবং ৫০ হার্জের পাওয়ার সংযোগের মাধ্যমে চালানো যাবে। এতে থাকা তারের দৈর্ঘ্য প্রায় পাঁচ মিটার। বাজারে ওয়াল্টনের এ ভ্যাকুয়াম ক্লিনারটি ৩,৩০০ টাকায় পাওয়া যাবে।

    ওয়াল্টন ডব্লিউএভিসি-এফ১৫৩

    আপনি যদি ৩৬০০ হোস সুইভেল রোটেশনের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার খুঁজে থাকেন তবে এই মডেলটি আপনার জন্য। এর ট্রিপল ফিল্টার সুবিধার মধ্যে একটি ডাস্ট ব্যাগ ফিল্টার, ইনার ফিল্টার ও এক্সহাস্ট ফিল্টারে রয়েছে। সর্বোচ্চ ১২০০ ওয়াট শক্তির এবং প্রায় ২০ কেপিএ ভ্যাকুয়াম প্রেসারের ওয়াল্টনের এ ভ্যাকুয়াম ফ্লোর ক্লিনারটি আরও বেশি ময়লা শোষণ করতে পারে। ফ্লোর ক্লিনারটির লো নোজ ডিজাইন, ফেইল-সেইফ ফাংশন, রিট্রেক্ট্যাবল পাওয়ার কর্ডসহ বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে।

    বহনযোগ্য এবং নিয়মিত ব্যবহারের জন্য হালকা ডিজাইনের এই ভ্যাকুয়ামটির সুবিধা পাওয়া যাবে। এর নিচ্ছিদ্র আকার আপনার ঘরের ছোট একটি স্থানে রাখতে পারবেন। এতে থাকা তারের দৈর্ঘ্য ৪.৮মি। পুশ বোতাম ব্যবহার করে আপনি সহজেই কর্ডটি খুলে নিতে পারবেন। এটি ২২০-২৪০ ভোল্ট ও ৫০ হার্জের মধ্যে কাজ করবে। দেশিয় ব্রান্ড ওয়াল্টনের এ ভ্যাকুয়াম ক্লিনারটি সাড়ে পাঁচ হাজার টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

    ৬০০০-১০০০০ টাকার সেরা ভ্যাকুয়াম ক্লিনার

    দেশের বাজারে আপনি ৬০০০-১০০০ হাজার টাকার মধ্যে আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড যেমন বেকো, স্যামসাং, সানফোর্ড ইত্যাদি ফ্লোর ক্লিনার কিনতে পারবেন।

    বেকো ভ্যাকুয়াম ক্লিনার বিওভিসি-ভিসিসি৬৪২৪ডব্লিউআই

    হোম অ্যাপ্লায়েন্সেসের বিখ্যাত গ্লোবাল ব্র্যান্ড হলো বেকো। এর বিওভিসি-ভিসিসি৬৪২৪ডব্লিউআই মডেলটিতে থাকা এইচইপিএ১২ ফিল্টার সিস্টেমটি প্রায় ৯৯.৯৫% ধূলিকণা পরিষ্কার করতে পারে। এই মাল্টি-ফাংশনাল ফ্লোর ক্লিনারটিতে একটি অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সুরক্ষিত ৪-লিটারের ডাস্ট কন্টেইনার রয়েছে। ৬মিটার লম্বা কর্ডের এই ভ্যাকুয়ামটি দিয়ে ৮-মিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে কাজ করা যায়। এর শব্দ স্তর প্রায় ৮২ডিবি।

    এতে একটি কমপ্যাক্ট ডিজাইনে কার্ড রেউইন্ডার, অন-বডি অ্যাকসেসরি হোল্ডার, ক্রেভাইস নজলের সাথে রাউন্ড ব্রাশ, আপহেস্টারি নজেল, ওয়াশেবল ফিল্টার, মেটাল টেলিস্কোপিক টিউব হোস, দুটি বড় চাকা রয়েছে। এর ময়লা শোষণের ক্ষমতা সর্বোচ্চ ৪৩০ ওয়াট। এটির সর্বোচ্চ ২৪০০ ওয়াট পর্যন্ত শক্তি থারণ করতে পারে। নির্মাতাদের দাবি বেকো বিওভিসি-ভিসিসি৬৪২৪ডব্লিউআই ব্যবহারে কম বিদ্যুত খরচ হবে। এই ফ্লোর ক্লিনারটি ৭৪৯০ টাকায় বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।

    স্যামসাং ক্যানিস্টার ভ্যাকুয়াম ক্লিনার: ভিসিসি৪১৭০এস৩৭

    আপনি যদি ৮,০০০ টাকার মধ্যে স্যামসাংয়ের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার কিনতে চান তবে ভিসিসি৪১৭০এস৩৭ মডেলটি বেছে নিতে পারেন। এই মডেলটিতে আপনি ৩৫০ ওয়াট শোষণ ক্ষমতাসহ ৩৬০ সুইভেল হোস সুবিধা পাবেনন। এটি সচরাচর ১৬০০ ওয়াট শক্তি ব্যবহার করে তবে সর্বোচ্চ শক্তি ১৮০০ ওয়াট পর্যন্ত পৌঁছে যেতে পারে। এটি তিন লিটার ধূলিকণা ধারণ করা যায়। এর শব্দ স্তর প্রায় ৮২ ডিবি হয় এবং কর্ডের দৈর্ঘ্য ৬ মিটার।

    এর ‘ইজি ডাস্ট ব্লোইং’ সুবিধা মেঝের কোণাতে থাকা ধূলিকণা এবং ময়লা সহজেই তুলে আনতে পারে। এছাড়াও, এটির ‘সিম্পল টাচ’ বোতামটি ভেরিয়েবল পাওয়ার অপশন এবং অন/অফ নিয়ন্ত্রণগুলো একই জায়গাতে পাওয়া যায়। স্যামসাং ভিসিসি৪১৭০এস৩৭ দেশের বাজারে ৭,৯০০ টাকায় পাওয়া যায়।

    স্যামসাং ক্যানিস্টার ভ্যাকুয়াম ক্লিনার: ভিসি১৮এম২১২০এসবি/এমই

    আপনার বাজেট বাড়িয়ে ৯ হাজার টাকায় স্যামসাংয়ের আরেকটি ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ভিসি১৮এম২১২০এসবি/এমই মডেলটি কিনতে পারেন। ৪.৬ কেজি ওজনের একটি কমপ্যাক্ট ডিজাইনের এই ভ্যাকুয়ামটি আপনাকে কম সময়ে এবং শ্রমে পুরো বাড়ি পরিষ্কার করতে সহায়তা করবে। এর কর্ড দৈর্ঘ্য প্রায় ৬মিটার। ৮৭ ডিবিএ শব্দের এই ভ্যাকুয়ামটি অন্য মডেলের তুলনায় শব্দ কিছুটা জোরে শোনা যাবে।

    এই ক্যানিস্টার ভ্যাকুয়ামের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য যে বৈশিষ্ট্য রয়েছে তা হলো এর সাইক্লোন ফোর্স ডিজাইন যা এতে অ্যান্টি-টাঙ্গেল টার্বাইন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সমন্বিত করা হয়েছে। ফলে এটি দিয়ে ধারাবাহিকভাবে মেঝে পরিষ্কার করা সহজতর হবে। আপনি এই মডেলটিতে ৩৭০ ওয়াটের শোষণ ক্ষমতা পাবেন। যা ব্যবহার করতে সর্বনিম্ন ১৮০০ ওয়াট শক্তির প্রয়োজন হবে। পরিষ্কার করার কাজে ব্যবহারের সময় এর অ্যান্টি-টাঙ্গেল টারবাইন ডিজাইন ময়লা, ধূলিকণা, ধ্বংসাবশেষ, চুল ইত্যাদির পেচিয়ে যাওয়া রোধ করে এবং এর ধুলাবালি ধারণ ক্ষমতা প্রায় দেড় লিটার। স্যামসাংয়ের এ ফ্লোর ক্লিনারটির দাম পড়বে প্রায় ৮,৯০০ টাকা।

    সানফোর্ড ভ্যাকুয়াম ক্লিনার এসএফ৮৭৯ভিসি

    আপনি কী ভেজা এবং শুকনো উভয় মেঝে পরিষ্কার করতে সমান কার্যকর ভ্যাকুয়াম ফ্লোর ক্লিনারের খোজ করছেন? আপনার উত্তর যদি হ্যাঁ হয়ে থাকে তবে সানফোর্ড ভ্যাকুয়াম ক্লিনার এসএফ৮৭৯ভিসি কিনতে মিস করবেন না। এই ভ্যাকুয়ামটিতে ৬ ধাপের পরিস্রাবণ সুবিধা রয়েছে। এতে বিদ্যুৎ খরচ হতে পারে ১৪০০ থেকে ১৬০০ ওয়াট। এর ৫০/৬০ হার্জের বিদ্যুতৎ সংযোগের সাথে ২২০-২৪০ ভোল্টের পাওয়ার আউটলেট আছে। ১৫ লিটারের বিশাল ধুলা জমার সুবিধা থাকায় এই ভ্যাকুয়ামটি প্রতিযোগীদের ছাড়িয়ে গেছে। এটির শব্দ করার মাত্রা ৮০ডিবিএর নিচে।

    মানসম্পন্ন এ ফ্লোর ক্লিনারটিতে ব্লোয়ার ফাংশন, ওয়াটার-রেজিস্ট্যান্ট পাওয়ার সুইচ, মাল্টিফানশিয়াল ব্রাশের সাথে বোর্ড টেলিস্কোপিক পাইপ, কার্পেট এবং শক্ত মেঝের জন্য স্ট্যান্ডার্ড নজল, নতুন ব্রাশের সাথে একাধিক নজল, কর্ড রেউইন্ডার গ্রোভের মতো ফিচার রয়েছে। এতে থাকা হ্যান্ডগ্রিপের মাধ্যমে বাতাসের বেগ নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এর ৮-মিটার লম্বা তারের সাহায্যে ঘর পরিষ্কার করতে আপনি আরও বেশি সুবিধা পাবেন। এই সানফোর্ড ভ্যাকুয়ামেটির দাম পড়বে ৯হাজার ৯০০ টাকা।


    পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

    ভ্যাকুয়াম ক্লিনার
    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    cdbl
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close