• বুধবার, ০৩ জুন ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

সববয়সীদের ঈদের কেনাকাটা করুন অনলাইনে

প্রকাশ:  ১৭ মে ২০২০, ১১:২৩
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

করোনাকালে ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে শপিং মলে গিয়ে কেনাকাটার কথা হয়তো ভাবছেন না। তাই বলে কী এবার ঈদ কেনাকাটা হবে না? আপনি চাইলে এবারও হবে ঈদ কেনাকাটা। আপনার সামনে রয়েছে অনলাইনে কেনাটাকার বিশাল সুযোগ। বাংলাদেশের নামী ব্রান্ডগুলো এখন অনলাইনে কেনাকাটার সুযোগ দিচ্ছে। সেখান থেকে সববয়সীদের ঈদের কেনাকাটা করতে পারবেন ঘরে বসেই।

আড়ং

আপনি যদি আরামদায়ক পোশাকের সাথে আভিজাত্যকে ফুটিয়ে তুলতে চান তবে আপনি আড়ংয়ের অনলাইনে ভিজিট করতে পারেন। ১৯৭৮ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে লাইফস্টাইল জগতে সবার উপরে আছে আড়ং। দেশের সবচেয়ে বড় এনজিও প্রতিষ্ঠান ব্রাকের পরিচালনায় আড়ং সকলের কাছে সমাধৃত ব্রান্ডে পরিণত হয়েছে। এতে আপনি পাবেন হ্যান্ডিক্রাফট, পোশাক, ঘর-গৃহস্থালি সাজানোর সরঞ্জাম, লাইফস্টাইল পণ্য, সিরামিক এবং আরও অনেক কিছু। নারী, পুরুষ ও শিশুদের পোশাক অনলাইনে কেনার জন্য আড়ং হতে পারে আপনার প্রথম পছন্দ। আড়ং থেকে অনলাইনে কেনাকাটার জন্য ভিজিট করুন-

https://www.aarong.com/

ক্যাটস আই

সময়োপযোগী ডিজাইনের পোশাকের জন্য দেশের লাখ লাখ পুরুষদের মন জিতে নিয়েছে ক্যাটস আই। ১৯৮০ সালে প্রতিষ্ঠিত প্রথম সারির এ ব্রান্ড হাউজটি অনন্য ডিজাইনের পুরুষদের পোশাক তৈরি করে আসছে। এখনে আপনি পুরুষদের জন্য শার্ট, প্যান্ট, জিন্স, পাঞ্জাবি, শেরওয়ানিসহ ফরমাল ও ক্যাজ্যুয়াল পোশাক পাবেন। আপনি আর কি চান? এছাড়াও ক্যাটস আইয়ে আপনি টাই, কাফলিঙ্ক, ওয়ালেট, ব্যাগ, জুতা, বেল্ট, ক্যাপ, সানগ্লাস, লেবেল পিন, স্কাফ প্রভৃতি পাবেন। পুরুষদের পোশাক ও অন্যান্য সামগ্রীর পাশাপাশি ক্যাটস আইয়ে রয়েছে নারীদের পোশাকও। কেনাকাটা করতে চাইলে ঘুরে আসুন https://catseye.com.bd/ ঠিকানায়।

কে ক্রাফট

তাঁত-ভিত্তিক হস্তশশিল্পকে প্রাধান্য দিয়ে ফ্যাশন সামগ্রী নিয়ে ১৯৯৩ সালে দেশের ফ্যাশন জগতে প্রবেশ করেছে কে ক্রাফট। ঘরে বসে ফ্যাশন বুটিক হিসাবে যাত্রা শুরু করে কে ক্রাফট বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান ফ্যাশন হাউসগুলোর একটি হয়ে উঠেছে। দেশের ঐতিহ্যবাহী তাঁত-ভিত্তিক হস্তশিল্পের সাথে হালআমলের ফ্যাশন সচেতনতার সমন্বয়ে কে ক্রাফট তাদের ডিজাইন, রঙ, টেকনিক এবং অলঙ্কার যেমন স্টিচ, স্ক্রিনপ্রিন্ট, ইরি, অ্যাপলিক, ব্লক প্রিন্ট, জারদৌসি, সিকুইন-ওয়ার্ক, নট স্টিচ, টাই ও ডাই, কাট-ওয়ার্ক, অ্যামব্রোডারি, কানথা, স্টিচের মতো বিষয়ে বৈচিত্যতা নিয়ে এসেছে। নারী-পুরুষ-শিশুদের পছন্দের পোশাক কিনতে ভিজিট করুন -http://kaykraft.com/

এক্সটেসি

১৯৯৭ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে দ্রুতই দেশের প্রতিষ্ঠিত বড় ব্রান্ডগুলোর তালিকায় উঠে এসেছে ফ্যাশন রিটেইলার এক্সটেসি। দেশের তরুণপ্রজন্মের কথা চিন্তা করে ছেলে-মেয়েদের জন্য এক্সটেসি নিয়ে এসেছে এক্সক্লুসিভ ফ্যাশনের পোশাক ‘তানজিম’ ও ‘যারযেইন’। পোশাকের সমাহারের মধ্যে রয়েছে ছেলেদের শার্ট, পোলো শার্ট, প্যান্টস, জিন্স, অন্যান্য সব ফ্যাশন অনুষঙ্গ, মেয়েদের ফতুয়া, টপ্স, জিন্স, সালোয়ার কামিজসহ অন্যান্য ফ্যাশন অনুষঙ্গ, বাচ্চাদের সব ধরনের পোশাক, জুতো এবং হস্তশিল্প পণ্য। হালআমলের ব্যাগ ও পশ্চিমা পোশাক যে সকল মেয়েদের পছন্দ তারা ঘুরে আসতে পারেন এক্সটেসির ওয়েবসাইট- https://ecstasybd.com/

ইয়েলো

নামের চেয়েও বেশি রঙিন পোশাকের সমাহার নিয়ে আসছে ফ্যাশন ব্রান্ড ইয়েলো। দেশের প্রসিদ্ধ প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকোর অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ইয়েলো দেশের ফ্যাশন জগতে এসেছে ২০০৪ সালে। সেরা কাপড়ের মান এবং ডিজাইনের ভিন্নতার জন্য ইয়েলো বাংলাদেশের ফ্যাশন সচেতনদের কাছে ভরসার নাম। আপনি যদি পরিবারের সবার জন্য ফরমাল ও ক্যাজ্যুয়াল পোশাক কেনার জন্য একটি অনলাইন শপিংয়ের ওয়ানস্টপ সমাধান চান তবে ইয়েলোর ওয়েবসাইট https://yellowclothing.net/ ঘুরে আসা আপনার সবচেয়ে সেরা পছন্দ হতে পারে।

লা রিভ

‘ফ্যাশন ফর এভরিওয়ান ফর এভরি অকেশন’-এ শ্লোগান নিয়ে দেশের ফ্যাশন জগতে ২০০৯ সালে আসে বিখ্যাত ব্রান্ড লা রিভ। আধুনিক চলের সঙ্গে মিল রেখে দেশীয় ঐতিহ্যের মিশ্রণে দেশের ফ্যাশন ও লাইফস্টাইল জগতের দেশের অন্যান্য ব্রান্ডের তুলনায় নবীন এ ব্রান্ডটি সদ্যজাত শিশু থেকে শুরু করে প্রবীণ নাগরিকসহ সকলের জন্য ট্রেন্ডিং পোশাকের সমাহার নিয়ে এসেছে।

এ ব্র্যান্ডটি ভিসকস মিশ্রণ, শিফন, স্যাটিন, জ্যাকার্ড, ডবি, জর্জেট এবং রেশম মিশ্রণের মতো উন্নত মানের কাপড়ে যুক্ত হয়েছে চমৎকার প্যাটার্ন, দারুণ রঙ এবং এক্সক্লুসিভ ডিজাইনেরক্যাজ্যুয়াল, শার্টস, জিন্স, ফতুয়া, পাঞ্জাবি, ডেনিম, সেলোয়ার কামিজ, টিউনিক, এথনিক ওয়ার, স্কির্ট, অ্যাকসেসরিজ। তাদের ওয়েবসাইটের ঠিকানা হলো-https://www.lerevecraze.com/

রঙ

পোশাক ব্রান্ড রঙ থেকে কেনাকাটা করে রাঙ্গিয়ে নিন আপনার ঈদ আয়োজন। তরুণ-তরুণীদের জন্য রঙিন ও সৃজনশীল পোশাকের অনুরাগ নিয়ে ১৯৯৪ সালে বাজারে আসে রঙ। র্দীঘ সময়ের এ যাত্রায় বিভিন্ন সময়ের উত্থান-পতনের মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশের প্রথম সারির ফ্যাশন ব্রান্ডের একটি হয়ে উঠেছে রঙ। রঙয়ের চোখ ধাঁধাঁনো সাথে মন জুড়ানো ডিজাইন যেকোনো ফ্যাশন সচেতন মানুষের চোখের উপাদেয়, তাইতো সময়ের পরিক্রমায় বাংলাদেশের সব বয়সের ছেলে-মেয়ে-বুড়ো-বুড়ি-বাচ্চা-কাচ্চাদের পছন্দের ব্র্যান্ড রঙ। হস্তশিল্পকে বাংলাদেশে নতুন ভাবে তুলে আনার ঐতিহ্যকে ধারণ করে এগয়ে চলায় প্রশংসা পেতেই পারে। রঙয়ের কালেকশনের মধ্যে রয়েছে- শাড়ি, সিঙ্গেল কামিজ, স্ট্রিচ ড্র্রেস, শাওয়াল, ফ্রক, টপস, কুর্তা, পাঞ্জাবি, শার্ট, টিস, ফতুয়া, গিফট সামগ্রী ইত্যাদি। রঙের এসব সামগ্রী কিনতে চাইলে ভিজিট করুন- https://rang-bd.com/ ঠিকানায়।

অঞ্জন’স

আপনার ঈদকে আরও বেশি স্পেশাল করে তুলতে আপনি কী যুগল পোশাক কিনতে চান? তবে আপনি নির্দিধায় অঞ্জন’স থেকে কেনাকাটা করতে পারেন। ১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠিত এ ব্রান্ডটিও তাদের পোশাক এবং হস্তশিল্প দিয়ে জয় করেছে ফ্যাশন সচেতন বাংলাদেশিদের মন। ছেলেদের পোশাক (পাঞ্জাবি, পায়জামা, শার্ট এবং টি-শার্ট), মেয়েদের (ফতুয়া, লেডিস টপ, সালোয়ার কামিজ এবং শাড়ি) এবং শিশুদের (বেবি পাঞ্জাবি, ফ্রক এবং কিডস পাঞ্জাবি) সমাহার নিয়ে এসেছে অঞ্জন’স। অঞ্জন’স-এর মার্জিন-বাই-অঞ্জনস ট্যাগ লাইনে কটন, জরজেট, সিল্ক, এমব্রোডারি পোশাকসহ বিভিন্ন বৈচিত্র্যপূর্ণ পোশাক রয়েছে। অনলাইন কেনাকাটার ওয়েবসাইট হলো- https://www.anjans.com/

বাংলাদেশের অন্যান্য প্রসিদ্ধ ব্রান্ডের ওয়েবসাইটগুলো হলো-

ফ্রিল্যান্ড- http://freeland.com.bd/

সাদাকালো- http://sadakalo.net/

ইজি ফ্যাশন- https://easyfashion.com.bd/

স্মার্টট্যাক্স- https://smartex-bd.com/

ট্রেন্ডজ- http://trendzbd.com/

গ্রামীণ ইউনিকলো- https://www.grameenuniqlo.com/

বাটা- https://www.batabd.com/

অ্যাপেক্স- https://www.apex4u.com/


পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

অনলাইন,কেনাকাটা,শপিং
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close