• রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
  • ||

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিকে অপহরণ, গ্রেপ্তার ৩

প্রকাশ:  ০৪ নভেম্বর ২০২০, ২০:৫২ | আপডেট : ০৪ নভেম্বর ২০২০, ২১:৫৬
মালয়েশিয়া প্রতিনিধি

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিকে অপহরণের দায়ে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা ৩ জনই বাংলাদেশের নাগরিক।

জানা গেছে, গত ২ নভেম্বর আনুমানিক রাত সাড়ে ৮টার (স্থানীয় সময়) দিকে ৪ জন লোক একটি সাদা (ইসুজু ডি ম্যাক্স) গাড়িতে করে অ্যাপার্টমেন্ট পাংসাপুরি প্রেমাই- সেকশন-৩ এর সামনে এসে দাঁড়ায়। গাড়িতে থাকা ৪ বাংলাদেশি নেমে আলী আরশাদ নামের এক শ্রমিককে প্রথমে কাজের কথা বলে গাড়িতে তোলার চেষ্টা করেন। আরশাদ গাড়িতে যেতে না চাইলে তাকে জোর করে গাড়িতে তুলে নিয়ে পার্শ্ববর্তী নার্সারির জঙ্গলের ভেতরে একটা ঘরে নিয়ে আটকে রাখে।

সেখানে অপহরণকারীরা আলী আরশাদের হাত মোটা রশি দিয়ে বেঁধে ফেলে। এরপর লোহার শেকল দিয়ে পা বেঁধে পাশবিক নির্যাতন চালায় তার ওপর। নির্যাতনের সময় আলী আরশাদের পেন্টের পকেট থেকে মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে ইমু অ্যাপসের মাধ্যমে ভিডিও কল দিয়ে নির্যাতনের দৃশ্য দেখিয়ে পরিবারের কাছে ৩০ হাজার রিঙ্গিত (বাংলাদেশি টাকায় ৬ লাখ) মুক্তিপণ দাবি করে। পরিবারের পক্ষ থেকে মুক্তিপণ দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় অপহরণকারীরা। নির্যাতনের দৃশ্য দেখে অসহায়ত্ব প্রকাশ করে পরিবারের পক্ষ থেকে ২ দিনের সময় চাওয়া হয় অপহরণকারীদের কাছে।

এদিকে ওই রাতেই আলী আরশাদের অপহরণের খবর পেয়ে যান মালয়েশিয়ায় থাকা বাংলাদেশি ব্যবসায়ী ইমাম হাজারী। খবর পাওয়ার কিছুক্ষণ পর ব্যবসায়ী ইমাম হাজারীর হোয়াটসঅ্যাপে অপহৃত আলী আরশাদের ছবি পাঠিয়ে একজন সহযোগিতা চান।

পরদিন সকালে দামানছারা থানায় (বালাই) হাজারী একটি মামলা দায়ের করেন। ইমাম হাজারীর করা মামলার সূত্র ধরে ৩ নভেম্বর বিকেল ৫টায় অপহরণের শিকার হওয়া আলী আরশাদকে উদ্ধার করা হয়। একইসঙ্গে ৩ বাংলাদেশিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ফারুক (কুমিল্লা), নুরুন্নবী (কুমিল্লা), বিপ্লব কুমার (যশোর)।

দামানছারা থানার পুলিশ ইন্সপেক্টর অ্যাডাম বলেন, এর সঙ্গে জড়িত বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে এবং তাদেরকেও দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।

এ বিষয়ে ইমাম হাজারীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কিছু সংঘবদ্ধচক্র এর সঙ্গে জড়িত। তারা মূলত টার্গেট করে অসহায় প্রবাসীদের এবং তাদের কাজের কথা বলে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে আটকে রেখে তাদের ওপর অত্যাচার করে ভিডিও ফুটেজ অথবা ছবি বাংলাদেশে তার পরিবারের কাছে পাঠায় এবং তাদের পরিবারের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা আদায় করে।

তিনি আরো বলেন, এই অপহরণকারী চক্রের কারণে মালয়েশিয়াতে বাংলাদেশের সুনাম নষ্ট হচ্ছে। শুধু যে মালয়েশিয়াতেই বাংলাদেশিদের মানসম্মান ক্ষুণ্ণ হচ্ছে তা নয়, সারা পৃথিবীতে ক্ষুণ্ণ হচ্ছে। যার যার অবস্থান থেকে এই অপহরণকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবার আহ্বান জানান তিনি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

মালয়েশিয়া
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close