• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  • ||

জীবন আর নাটককে আলাদা করে দেখেন না ফরিদা লিমা

প্রকাশ:  ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:০৫ | আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:২৫
বিনোদন প্রতিবেদক

থিয়েটারের নিয়মিত দর্শকদের কাছে ফরিদা আকতার লিমার আলাদা পরিচয় দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না। মঞ্চের একজন দক্ষ অভিনেত্রী হিসেবে সুপরিচিত তিনি। বর্তমানে কাজ করছেন অনুস্বর নাট্যদলের হয়ে, দলটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য তিনি।

ফরিদা লিমা বেড়ে ওঠেছেন সংস্কৃতিঘেষা একটি পরিবারে। তার বাবা একসময় খুব ভালো হারমোনিয়াম ও বাঁশি বাজাতেন। বোঝার বয়স থেকেই বাসায় হারমোনিয়াম ও বিভিন্ন ধরনের বাঁশি দেখে বড়ো হয়েছেন। সংস্কৃতির বীজটা রোপন হয় শৈশবেই। স্কুলের বার্ষিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অভিনয়,গান ও নৃত্য পরিবেশনের মাধ্যমে শুরু হয় পথচলা। পরে উচ্চশিক্ষার বাহন হিসেবে বেছে নেন নাটককেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগ (সাবেক নাট্যকলা ও সংগীত বিভাগ) থেকে বিএ (অনার্স - ফার্স্ট ব্যাচ) এবং এমএ ডিগ্রি অর্জন করেছেন তিনি।

নাট্যকলা নিয়ে পড়াশোনার সময় দেশবরেণ্য বেশকজন নাট্যব্যক্তিত্বের সংস্পর্শ পান ফরিদা লিমা। তারা পাল্টে দেন লিমার চিন্তাচেতনা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, জীবনকে বদলে দেবার ও জীবন ভাবনায় আমূল পরিবর্তনের সূতিকাগার হলো আমার প্রিয় নাট্যকলা বিভাগের শ্রদ্ধেয় শিক্ষকগণ। তাদের মধ্যে আলাদাভাবে আমি শ্রদ্ধেয় শিক্ষক সৈয়দ জামিল আহমেদের নাম আলাদাভাবে উল্লেখ করতে চাই। যিনি নিজেই একটি প্রতিষ্ঠান। নিজের বাবা মায়ের পরেই আমার জীবনে যার অবদান এবং প্রভাব সবচেয়ে বেশি। পাশাপাশি ড. ইসরাফিল শাহীন, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, রহমত আলি তাদের ভূমিকাও অসামান্য।

ফরিদা লিমা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিনয়ের তার প্রথম অভিজ্ঞতা কবর নাটকের মাধ্যমে। এরপর অধ্যাপক ওয়াহিদা মল্লিক জলি নির্দেশিত সংস্কৃত নাটক ‘মধ্যমা ব্যায়োগ’, ড. ইসরাফিল শাহীন নির্দেশিত সেম্যুয়েল বেকেটের নাটক ‘ওয়েটিং ফর গোডো’, আন্তন চেখভের নাটক ‘থ্রি সিস্টার্স’ এবং সর্বোপরি অধ্যাপক সৈয়দ জামিল আহমেদ নির্দেশিত লোকনাট্য ‘বেহুলার ভাষান’ নাটকে অভিনয় জীবনের তার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা।

তিনি বলেন, এম এ ফাইনালের পর সার্ক নাট্য উৎসব ২০০৫ এর জন্য ইশরাত নিশাতের নাটক `বিরাঙ্গনা' নাটকটি ভারতের চারটি প্রদেশে মঞ্চায়ন হয়। এগারো দিনের এই সফরে নিশাত আপার রুমমেট ছিলাম আমি। সে এক অসাধারণ অভিজ্ঞতা। নিশাত আপাকে এসময় খুব কাছে থেকে দেখার সুযোগ হয় আমার। এছাড়া ওস্তাদ বিসমিল্লাহ খাঁ’র সাথে নিজস্ব ভবনে সরাসরি দেখা ও কথা বলার সুযোগ হয়েছিল এই ট্যুরেই।

বিশ্ববিদ্যালয় জীবন শেষ করে ২০০৭ সালে ফরিদা লিমা যোগ দেন নাট্যদল থিয়েটার আর্ট ইউনিটে। অভিনয় করেন রোকেয়া রফিক বেবীর নির্দেশিত নাটক ‘আমিনা সুন্দরী’ এবং ড. মোহাম্মদ বারি নির্দেশিত জহির রায়হানের গল্প অবলম্বনে নাটক ‘সময়ের প্রয়োজনে’-তে।

২০১৯ সালে ফরিদা লিমা যুক্ত হন অনুস্বর নাট্যদলে। দলটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা তিনি। অনুস্বরের হয়ে অভিনয় করেন ড. মোহাম্মদ বারি নির্দেশিত নাটক ‘অনুদ্ধারনীয়’, নাট্যকার আর্থার মিলারের নাটক ‘মূল্য অমূল্য’, মাহবুব আলম রচিত ও সাইফ সুমন নির্দেশিত ‘তিনকড়ি’ এবং সৈয়দ শামসুল হকের উপন্যাস অবলম্বনে ‘যাদুকর’ নাটকে অভিনয় করেন।

অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে সাউথ এশিয়া বিজনেস অ্যাওয়ার্ডে শ্রেষ্ঠ থিয়েটার অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন ফরিদা লিমা। গত ২৩ সেপ্টেম্বর রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

কেবল অভিনয়েই নয়, এরই মধ্যে নেপথ্যে কাজে হাত পাকিয়েছেন ফরিদা লিমা। সেলিনা হোসেনের শিশুতোষ নাটক ‘বনের রাজা’ একং জ্যঁ পল সাঁর্তের ‘ম্যন উইদাউট স্যাডো’ নাটক দুটো নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। এছাড়াও নাট্যকার বদরুজ্জামান আলমগীর রচিত এবং কামাল উদ্দিন কবির নির্দেশিত ‘অহরকন্ডল’ এর সহকারী হিসেবে কাজ করেন। অহরকন্ডল, সময়ের প্রয়োজনে, মূল্য অমূল্য, তিনকড়ি এবং যাদুকর নাটকে পোশাক পরিকল্পনা করেন তিনি।

ফরিদা লিমা পরিচালনা করেছে বেশ কয়েকটি কর্মশালা। ইম্প্রুভাইজেশন এবং ফিজিক্যাল ট্রেইনিংয়ের উপর কর্মশালা পরিচালনা করেছেন প্রাঙ্গলে মোর ও ঢাকা নাট্যদলের সাথে। থিয়েটার এক্সপেরিয়েন্সের উপর কর্মশালা পরিচালনা করেছেন নাট্যবিন্দু, মুন্সিগঞ্জ নাট্যদলের সাথে। ইমপ্রুভাইজেশন ও থিয়েটার গেমস নিয়ে কর্মশালাপরিচালনা করেছেন নাট্যকেন্দ্র ও ঢাকা নাট্যদলের সাথে। জন্মসূত্র নাট্যদল ঢাকার সাথে এক্টিং মেথড ও এক্টরস প্রিপারেশন এর উপর কর্মশালা পরিচালনা করেছেন। এছাড়াও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি নাট্যদলের সাথে ফিজিক্যাল এক্টিং ও ইম্প্রুভাইজেশন নিয়ে কাজ করেছেন।

পেশাগতভাবে দীর্ঘ ১৬ বছর তিনি টেলিভিশন মিডিয়ার সাথে যুক্ত হলেও বর্তমানে একটি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা বিড ফাউন্ডেশনে কর্মরত আছেন।

ফরিদা লিমা জানালেন, জীবন আর নাটককে তিনি আলাদা করে দেখেন না। নাটক তার জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। নাটক এবং মঞ্চ নিয়েই থাকতে চান আজীবন। #

মঞ্চনাটক,ফরিদা লিমা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close