• শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ১৩ মাঘ ১৪২৯
  • ||

১৩ বছর ঝগড়ার পর প্রকাশ্যে চুম্বন দুই নায়িকার

প্রকাশ:  ১৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:২০
বিনোদন ডেস্ক

বলিউডের নায়িকারা কি পরস্পরের বন্ধু হতে পারেন! রেকর্ড বলছে পারেন না। দু’জন নায়িকা সমসাময়িক এবং সফল হলে তো নয়ই। অন্তত তেমন কোনো উদাহরণ আজ পর্যন্ত দেখেনি বলিউড। তবে এই বলিউডেরই দুই নায়িকা না কি এক পুরস্কারের মঞ্চে ঠোঁটে ঠোঁট রেখে ব্যারিকেড গড়েছিলেন!

ফেসবুক-ইনস্টাগ্রামে ইদানিং নায়িকাদের সদলবল ছবি চোখে পড়ে। সেই সব ছবিতে গলায় গলায় বন্ধুত্বও দেখা যায়। তবে বলিউড পর্যবেক্ষকদের বক্তব্য, এ সবই নাকি ‘লোক দেখানো’। সময় বিশেষে গলায় গলায় ভাব ভুলে প্রকাশ্যে গালিগালাজ করতে বিন্দুমাত্র সময় নেন না এই নায়িকারা।

পুরস্কার মঞ্চের ওই দুই নায়িকাও ঝগড়ায় জড়িয়েছিলেন। ছবির শুটিংয়ে সহ অভিনেত্রীকে কালো বেড়াল বলে কটাক্ষ করেছিলেন অন্যজন। সেটাই ছিলো বলিউডে তাদের প্রথম এবং শেষ ছবি।

‘কালো বিড়াল’ বিতর্ক ২০০১ সালে রীতিমতো হইচই ফেলেছিলো রূপালি দুনিয়ায়। শোনা যায়, রাগের মাথায় একজন অন্যজনকে থাপ্পড়ও কষিয়েছিলেন। এই দুই নায়িকার কারা? একজনের নাম কারিনা কাপুর। অন্যজন বিপাশা বসু।

বলিউডে দু’জনের ঝগড়া মারাত্মক আকার নিয়েছিলো এক সময়। নিন্দুকেরা বলেন, শালীনতা আর পেশাদার সৌজন্যবোধের সীমা লঙ্ঘন করে কুৎসিত পর্যায়ে পৌঁছেছিলো দুই অভিনেত্রীর লড়াই। ঝগড়ার শুরু হয়েছিলো ‘আজনবি’ ছবির সেটে। বলিউডে বিপাশার প্রথম ছবি ‘আজনবি’। ছবিতে তার সহ-অভিনেত্রী ছিলেন কারিনা। দুই নায়িকার ঝগড়া হয়েছিলো তাদের পোশাকশিল্পীকে নিয়ে।

কারিনার ব্যক্তিগত পোশাকশিল্পী নাকি তার অনুমতি না নিয়েই বিপাশাকে তার পোশাকের ব্যাপারে সাহায্য করেছিলেন। তাতে কারিনা রেগে যান। দু’জনের তুমুল ঝগড়া হয়। কারিনা প্রকাশ্যে চড় মারেন বিপাশাকে। বলিউডে নবাগতা বাঙালি নায়িকাও না কি পাল্টা জবাব দিতে ছাড়েননি।

নায়িকাদের মনমালিন্য প্রকাশ্যে চলে আসে বিপাশার দেওয়া সাক্ষাৎকারে। ২০০১ সালে ওই সাক্ষাৎকারে বিপাশা বলেছিলেন, ‘‘আমার কোনো সমস্যা ছিলো না। ওরই (কারিনার) পোশাকশিল্পীর সঙ্গে সমস্যা হয়েছিলো। এর মধ্যে আমায় কেন টানা হলো জানি না।’’

তবে একই সঙ্গে বিপাশা জানিয়েছিলেন, ভবিষ্যতে কারিনার সঙ্গে আর কখনো ছবি করবেন না তিনি।

কারণ জানতে চাওয়া হলে নায়িকা বলেছিলেন, ‘‘ব্যক্তিগত সম্পর্ক ভালো না হলে পর্দায় তার প্রভাব পড়তে বাধ্য। তার সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত স্তরে কথাবার্তা নেই। তাই ভবিষ্যতে আমরা কখনো একসঙ্গে ছবি করবো বলে মনে হয় না।’’

বিপাশাকে এই মন্তব্যের জবাব দিতে দেরি করেননি কারিনাও। ২০০২-এ একটি সাক্ষাৎকারে বেবো বলেন, ‘‘চার পাতার সাক্ষাৎকারের তিন পাতা জুড়ে আমার কথাই বলে গিয়েছে (বিপাশা)। আমার মনে হয়, তার নিজের কাজ সম্পর্কে বলার কিছু নেই। তার খ্যাতির একমাত্র কারণ আমার সঙ্গে ঝগড়া। তাই এই নিয়েই কথা বলেছে।’’

এমনই সেই ঝগড়ার যে টানা ১৩ বছর মুখোমুখি হননি কারিনা-বিপাশা। ২০১৪ সালে তাদের একসঙ্গে দেখা যায় এক মঞ্চে। সেখানেই ঘটনাটি ঘটে। ছবিশিকারিদের কাছে ধরা পড়ে যান দু’জনে। পুরস্কারের মঞ্চে হঠাৎই দেখা যায় কারিনার ঠোঁট ছুঁয়েছে বিপাশার ঠোঁট। বিপাশার হাত কারিনার কাঁধে। চোখ বুঝেছেন কারিনাও। মোক্ষম মুহূর্তটি ধরা পড়ে যায় ক্যামেরায়। ছবিটি ভাইরালও হয়ে যায়।

দুই নায়িকার ভক্তরা প্রশ্ন তোলেন তাহলে কি ১৩ বছরের বরফ গললো! জবাব আসে পরে। জানা যায়, মঞ্চে বিপাশাকে সৌজন্য দেখাতে গালে গাল ছুঁইয়ে অভিনন্দন জানাতে এসেছিলেন কারিনা। দুর্ঘটনাবশত গালের বদলে ঠোঁট ছুয়ে যায় দু’জনের।

বিপাশা-কারিনার ঘনিষ্ঠরা অবশ্য বলেছিলেন, দু’জনের ঝগড়া থামানোর ইঙ্গিত ছিলো ওই ঘটনা। পুরোনো ঘটনা ভুলে এবার দু’জনেরই এগিয়ে যাওয়ার সময়। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

নায়িকা,চুম্বন,ঝগড়া,বলিউড
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close