• শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮
  • ||

দুই সন্তানের মা হয়েও যেভাবে ফিটনেস ধরে রেখেছেন কারিনা

প্রকাশ:  ০৭ আগস্ট ২০২১, ১৬:২৬
বিনোদন ডেস্ক

বলিউডে জনপ্রিয় অভিনেত্রী কারিনা কাপুর খানের অভিনয় ও সৌন্দর্যের প্রশংসা করে পুরো বিশ্ব। তিনিই জিরো ফিগারের ট্রেন্ড এনেছিলেন। বর্তমানে দুই সন্তানের জননী হলেও কারিনা তার ফিটনেস ঠিক আগের মতোই ধরে রেখেছেন। তবে তার এই ফিটনেসের রহস্য কী?

বয়স ৪০ পার হলেও তার ফিটনেস ও সৌন্দর্য আগের মতোই আছে। দুই সন্তানের মা হয়েও নিজেকে কীভাবে ফিট রেখেছেন করিনা, কীভাবেই ধরে রেখেছেন যৌবন, ফাঁস হল করিনার ফিটনেস সিক্রেট। সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে বলি অভিনেত্রী করিনা কাপুর খানের ফিটনেস রহস্য।

দুই সন্তানের জননী কারিনা তার গর্ভাবস্থার মেদ খুব দ্রুত কমিয়েছেন। এর প্রধান কারণ হলো গর্ভাবস্থায় সবসময় সক্রিয় থাকা। কারিনা নিজেই স্বীকার করেছেন, তিনি গর্ভাবস্থায় খুব সক্রিয় ছিলেন।

তার মতে, এই অবস্থায় শরীরকে সচল রাখা খুবই জরুরি। এজন্য হাঁটা, ওজন প্রশিক্ষণ, সাঁতারসহ ইয়োগা করেছেন তিনি। যে যেভাবে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন; সেভাবেই শরীর সক্রিয় রাখবেন। পাশাপাশি আরামদায়ক পোশাক পরুন।

কিক বক্সিং করতে কারিনা অনেক পছন্দ করেন। তিনি বিশ্বাস করেন, কিক বক্সিং এর অনেক মানসিক স্বাস্থ্য সুবিধা আছে। এটি আপনার রাগকে শান্ত করে এবং আপনাকে ইতিবাচক শক্তিতে পূর্ণ করে। যদি আপনি এটি আপনার ফিটনেস রুটিনে অন্তর্ভুক্ত করেন; তাহলে আপনি খুব দ্রুত অতিরিক্ত ওজন কমাতে পারবেন।

সেইসঙ্গে কারিনা কাপুর খান ২০০৬ সাল থেকে যোগব্যায়াম শুরু করেন। এর ফলস্বরূপ, দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম পর্যন্ত তিনি ফিট ছিলেন। তার মতে, প্রত্যেক নারীর উচিত প্রসবের পর যোগব্যায়াম করতে হবে। অবশ্যই ধারাবাহিকতার প্রয়োজন আছে। তবেই আপনি ফিট হবেন।

ডায়েট প্ল্যান

কারিনার মতে, আপনি যতই চেষ্টা করুন না কেন, ওয়ার্কআউট রুটিন তখনই কার্যকর হবে; যখন আপনি এর সঙ্গে সঠিক ডায়েট প্ল্যান অনুসরণ করবেন। কারিনার ডায়েটে কার্বস, ফ্যাট এবং প্রোটিনের মিশ্রণ থাকে সমানভাবে।

তিনি ধান এবং গমের মতো সিরিয়ালের গ্রহণ অপরিহার্য মনে করেন। এমনকি সবুজ শাক-সবজি যেমন- পালং শাক, ব্রকলি এবং মেথিও তার খাবারে থাকে। পাশাপাশি হাইড্রেট থাকেন কারিনা। প্রচুর পরিমাণে পানি ও তাজা ফলের রস পান করেন কারিনা। সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া/ভোগ


পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএস

কারিনা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close