• বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭
  • ||

সেরে উঠছেন সৌমিত্র, শুনছেন রবীন্দ্র সংগীত

প্রকাশ:  ১৬ অক্টোবর ২০২০, ২১:৪৫
বিনোদন ডেস্ক
সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

ভারতের জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত কলকাতার বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি হয়েছে। করোনামুক্ত হওয়ার পর চিকিৎসায় ভাল সাড়া দিচ্ছেন। গত কয়েক দিন ধরে তন্দ্রাচ্ছন্ন থাকার পর এখন কথাও বলছেন তিনি। শুনছেন পছন্দের গান ও রবীন্দ্র সংগীত।

কলকাতার বেলভিউ নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ভালো ঘুমও হয়েছে সৌমিত্রের। যদিও এখনও তাকে আইটিইউ-তে রাখা হয়েছে। গত ৯ দিন ধরে তিনি দক্ষিণ কলকাতার ওই বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। গত শুক্রবার থেকে তার শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হতে শুরু করে। বুধবার থেকে ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন সৌমিত্র। শরীরিক জটিলতার কারণে নতুন করে কোনও সমস্যা হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে আগামী দু’তিন দিনে শারীরিক পরিস্থিতির আরও উন্নতি হবে।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, আজ শুক্রবার তার নানা ধরনের শারীরিক পরীক্ষা করা হবে। শরীরে অক্সিজেনের তারতম্যের কারণে মাঝেমধ্যে তার বাইপ্যাপ সাপোর্ট লাগছে। করোনা চিকিৎসায় দু’বার প্লাজমা থেরাপি করা হয়েছে। তার ফলে শারীরিক পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। হৃদযন্ত্র, কিডনি, যকৃৎ-সহ অন্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সচল রয়েছে অভিনেতার। শরীরে সোডিয়াম-পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিক রয়েছে।

বাংলা চলচ্চিত্রের এই কিংবদন্তি ২০১২ সালে পেয়েছেন ভারতের চলচ্চিত্র অঙ্গনের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মান দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার। আরও পেয়েছেন দেশ-বিদেশের বহু পুরস্কার। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ফ্রান্সের ‘লেজিয়ঁ দ্য নর’ পুরস্কার (২০১৮)। পেয়েছেন ভারতের রাষ্ট্রীয় সম্মান পদ্মভূষণসহ (২০০৪) ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র, সংগীত নাটক একাডেমি, ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কারসহ নানা পুরস্কার।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে পূর্বপশ্চিমবিডির সম্পর্ক অনেকটা জন্মসূত্রে। এই নিউজপোর্টালটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে এসেছিলেন তিনি। আরও ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের বরেণ্য সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়। কথা-কবিতা-গান ও আনন্দ-আড্ডায় এই দুই মধ্যমণিকে নিয়ে ২০১৫ সালের ২৪ নভেম্বর রাজধানীর গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে তৎকালীন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু পূর্বপশ্চিমবিডি.নিউজের লগো উন্মোচন ও উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের আদি বাড়ি বাংলাদেশের কুষ্টিয়ার শিলাইদহ। তবে পিতামহের আমল থেকেই তাদের পরিবার পশ্চিম বঙ্গের নদিয়া জেলার কৃষ্ণনগরে স্থায়ীভাবে বসতি গড়েন। ওই বাড়িতেই জন্ম তার। শৈশব কাটে তার সেখানেই। কৃষ্ণনগরের সেন্ট জন্স স্কুলে তার পড়াশোনায় হাতেখড়ি। বাবার কর্মস্থল পরিবর্তনের সাথে সাথে বদল হতে থাকে স্কুল। হাওড়া জেলা স্কুলে মাধ্যমিক পড়াশোন শেষ করেন। এরপর কলকাতার সিটি কলেজ থেকে আইএসসি আর কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা বি এ অনার্স সম্পন্ন করেন। পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কলেজ অব আর্টসেও দু বছর পড়াশোনা করেন তিনি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়,ভারত
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close