• মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭
  • ||

যে যত বেশি জানে সে তত বেশি বিনয়ী হয়

প্রকাশ:  ০৫ জুলাই ২০২০, ১৪:১৪
সাইফ খান

মানুষ যেকোনো বিষয়ে যত বেশি জ্ঞান অর্জন করতে থাকে তখন তার মনে হতে থাকে সে আসলে কিছুই জানে না আর তাই তার আচরণ দেখলে তাকে কিছুটা মূর্খের মতো মনে হয়।

আর মূর্খদের ক্ষেত্রে বিষয়টা উল্টো কারণ মূর্খদের জ্ঞানহীন আত্মবিশ্বাস খুব মারাত্মক হয়। মূর্খ নিজেকে মারাত্মক জ্ঞানী ভাবতে থাকে এতে তার মূর্খতা পূর্ণ আত্মবিশ্বাসের পালে বাতাস লাগতেই তাকে দেখতে অনেক জ্ঞানী মনে হয়।

সম্পর্কিত খবর

    আমি সবসমই লেবাসি মানুষদের খুব ভয় পাই। হোক সে রাজনৈতিক লেবাসি বা ধর্মীয়। সক্রেটিসকে যখন ফাঁসিতে ঝুলানো হয় তখন ফাঁসির আগ মুহূর্তে তার শেষ উক্তি ছিল "আমি যে কিছু জানিনা এটা আমি জানি কিন্তু তোমরা যে জানোনা এটাও তোমরা জানোনা"

    বিষয়টা খুব সাধারণ কিন্তু ধরতে পারা খুব কঠিন। কারণ সাধারণ জিনিসগুলোই কিন্তু অসাধারণ। যদি আমাকে নিয়ে ভাবেন আমি সাইফ জ্ঞানী না মূর্খ ? তবে বলে রাখি আমি খুব কনফিউজ একজন মানুষ।

    আমি শিখছি। দিবা রাত্রী শিখছি। প্রয়োজনে শিখছি। ঠেকে শিখছি। তবে নিজেকে মনে হয় কিছুই জানি না। শিখতে হবে। আমি শিখতে চাই। ধর্মে আছে দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত শিক্ষা অর্জন করার সময়। ছোট বেলায় কবিতায় পড়েছিলাম। সুনির্মল বসুর কবিতা "বিশ্বজোড়া পাঠশালা মোর সবার আমি ছাত্র; নানান ভাবে নতুন জিনিস শিখছি দিবারাত্র! …এই পৃথিবীর বিরাট খাতায় পাঠ্য যে সব পাতায় পাতায় শিখছি সে সব কৌতুহলে নেই দ্বিধা লেশমাত্র! "

    প্রকৃতির দিকে চেয়ে দেখুন। যখন কোনো গাছ বা উদ্ভিদ গুল্মরাজি ছোট থাকে তখন সেইসব গাছের পাতা কাণ্ড খাড়া থাকে। উপরের দিকে সোজা থাকে। আর যখন বড় হয় । পরিনত হয় তখন পাতাগুলো, কাণ্ডগুলো, ডালগুলোর মাথা নিচের দিকে ঝুঁকে থাকে। এটিও আমাদের জন্য এক প্রকার শিক্ষা। জ্ঞানীরা নিরহংকার হয়। বিনয়ী হয়।

    কিন্তু আমাদের সমাজে অধিকাংশের ক্ষেত্রে তার উলটা দেখা যায়। আমাদের সুশিক্ষার বড়ই অভাব এখন।

    লেখক: অভিনয়শিল্পী

    পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close