• শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭
  • ||

পাঁচ নারীর ‘নারী দিবস’ ভাবনা

প্রকাশ:  ০৮ মার্চ ২০২০, ০২:১৩ | আপডেট : ০৮ মার্চ ২০২০, ০২:৫৩
নিজস্ব প্রতিবেদক

আন্তর্জাতিক নারী দিবস আজ৷ নারীদের জন্য নিবেদিত একটা গোটা দিন৷ এই দিনটিকে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠার দিন হিসেবে বিশ্বজুড়ে চিহ্নিত করা হয়। নারী দিবস নিয়ে আমাদের শোবিজে স্বনামে প্রতিষ্ঠিত পাঁচ নারী কী ভাবছেন জেনে নেওয়া যাক।

নারগিস আক্তার, চলচ্চিত্র নির্মাতা

একজন নারী হিসেবে বেশ চড়াই-উৎরাই পার করে আজ আমার এই জায়গায় আসতে হয়েছে। অনেকে এমনো বলেছে মেয়ে মানুষ দিয়ে সিনেমা হবে না, হবে ছিঃনেমা। আমি কিন্তু তাতে একটুও ভড়কাইনি। বরং বুকে সাহস জুগিয়ে এগিয়ে গেছি। আর তাই আজকের অবস্থানে আসতে পেরেছি। আসলে নিজের উদাহরণটা দিলাম আমার মতো যারা এগিয়ে যেতে চান তাদের জন্য। কেন নারী দিবস কিংবা নারী অধিকার নিয়ে আজ এত হাহাকার? এর পেছনে সময় না দিয়ে বরং চলুন সবাই মিলে এগিয়ে যাই। যে যাই বলে বলুক না, চলুন পাল্টে যাই! নারী দিবস কিংবা নারীর জন্য আলাদা ভাবনা মানি না, আমরাও মানুষ!

রোকেয়া প্রাচী, অভিনেত্রী

নারী দিবসে সারা বিশ্বের নারীরা মনে করিয়ে দেয় নারী হলো স্পেশাল। তবে আমি মনে করি নারী ও পুরুষের সমাঝোতার মধ্য দিয়ে সবাইকে এগিয়ে যেতে হবে। উভয়ের পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে বিশ্বকে আরো সুন্দর করতে হবে। পুরুষরা আমাদের বিপক্ষের শক্তি নয়। একজন নারীর জয় মানেই একজন পুরুষের জয়। আবার একজন নারীর পরাজয়ও একজন পুরুষের পরাজয়। আজকের দিনে আমি বলতে চাই, নারীদের নিজ থেকে জাগ্রত হতে হবে। নারীর জাগরণের বহিঃপ্রকাশ ঘটে তার ইচ্ছের মাধ্যমে। সব প্রতিবন্ধকতা দূর করে নারীরা প্রত্যেক মাধ্যমে আরো বেশি ভূমিকা পালন করবে বলে আমি আশা করছি। একইসঙ্গে পুরুষেরাও নারীদের দিকে সহযোগিতা ও ভালোবাসার হাত বাড়িয়ে দেবে বলে আমার প্রত্যাশা।

চয়নিকা চৌধুরী. নাট্যনির্মাতা

দিবসটি নিয়ে আমার দ্বিমত আছে। শুধু একটি দিন নয়, ৩৬৫ দিনই আমরা আমাদের অধিকার চাই। অতীতের কথা চিন্তা করলে দেখা যাবে হয়তো আমরা পিছিয়ে ছিলাম, কিন্তু বর্তমানের চিত্র সম্পূর্ণ আলাদা। এখন নারীরা আর পিছিয়ে নেই। অফিস, আদালত, সংস্কৃতি, সমাজ কোন ক্ষেত্রে আজ নারীদের বিচরণ নেই? শুধু তাই নয়, রাজনৈতিক ক্ষেত্রেও নারীরা যথেষ্ট উচ্চ জায়গায় অবস্থান করছে। তাই বিশেষ দিবসের কথা চিন্তা না করে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে এগিয়ে যাওয়াটায় আসল।

নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি, সঙ্গীতশিল্পী

আমাদের সমাজ ব্যবস্থা পিতৃতান্ত্রিক। কিন্তু এটি পরিচালিত হয় মাতৃতান্ত্রিক ব্যবস্থায়। নারীরা আমাদের সমাজে অবহেলিত এটি আমি পুরোপুরি মেনে নিতে পারি না। নারীরা যদি সমাজে অবহেলিত হতো তবে আমি আজ গায়িকা ন্যান্‌সি হতে পারতাম না। আমাদের দেশের দুটি রাজনৈতিক দলের প্রধান হচ্ছেন নারী। দেশের প্রধানমন্ত্রী নারী। আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোতে নারীরা প্রতিষ্ঠিত। আমি মনে করি দু-একটি বিশৃঙ্খলার দ্বারা কোনোদিন পুরো জাতিকে বিচার করা উচিত নয়। আমাদের নারীদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজন সঠিক শিক্ষা। সেই শিক্ষা শুরু করতে হবে প্রতিটি পরিবার থেকেই। একজন মুক্তমনা, শিক্ষিত, রুচিশীল, সংগ্রামী, আদর্শ মা পারেন তার কন্যাকে মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে।

মেহজাবিন, অভিনেত্রী

প্রত্যেক পুরুষের জীবনে এক বা একাধিক নারী থাকে। সেটা হতে পারে মা, বোন, স্ত্রী। তাই প্রতিটি পুরুষের জীবনে নারীর অবদান অনেক। আর সমাজে বাস করার ক্ষেত্রে নারী পুরুষ একসঙ্গে চলতে পারলে সবদিক দিয়ে উন্নতি করা সম্ভব। এখন মিডিয়ায় পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও দিব্যি কাজ করে যাচ্ছে। তারাও এই অঙ্গনকে সমৃদ্ধ করছে। আগামীতে আমাদের দেশে নারীদের অবদান আরো বেশি হবে বলে আমি আশাবাদী।

পূর্বপশ্চিম এনই

নারী দিবস
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close