• রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬
  • ||

নাসিরের পর সুবাহকে কাঁদালেন তিনি

প্রকাশ:  ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ২১:২৬ | আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ২১:২৮
বিনোদন প্রতিবেদক
মডেল ও অভিনেত্রী শাহ হুমায়রা সুবাহ এবং চিত্রপরিচালক রফিক শিকদার। ফেসবুক থেকে সংগৃহীত ছবি।

বহুল আলোচিত-সমালোচিত মডেল ও অভিনেত্রী শাহ হুমায়রা সুবাহ। মডেলিং ও অভিনয় দিয়ে যতটা নজর কেড়েছেন, তার চেয়ে বেশি আলোচনায় এসেছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার নাসির হোসেনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ককে কেন্দ্র করে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার কয়েকটি অডিও ভীষণ সমালোচিত হয়। দফায় দফায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লাইভে এসে নাসিরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে কাঁদতে দেখা গেছে সুবাহকে। এবার সেই সুবাহকে কাঁদিয়েছেন চিত্রপরিচালক রফিক শিকদার।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী সুচরিতা। সম্প্রতি তিনি পরিচালক রফিক শিকদারের বিরুদ্ধে বাজে ব্যবহারের অভিযোগ করেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে। বিষয়টি পরবর্তী সময়ে লিখিতভাবে পরিচালক সমিতিকে জানানো হয়। গতকাল সন্ধ্যায় পরিচালক সমিতি থেকে উভয়কে ডেকে নেওয়া হয়। রফিক শিকদার ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চান। এর পরেই মূলত অভিনেত্রী সুচরিতার মনের বরফ গলতে শুরু করে। তিনি রফিককে ক্ষমা করে দেন।

‘বসন্ত বিকেল’ ছবির শুটিংয়ের সময় পরিচালকের বাজে ব্যবহারের অভিযোগ করেছিলেন সুচরিতা। এবার নিজের ফেসবুকে পরিচালক রফিক শিকদারকে ‘বদরাগি মানুষ’ হিসেবে উল্লেখ করেন এই ছবির নায়িকা ও ক্রিকেটার নাসিরের কথিত প্রেমিকা শাহ হুমায়রা সুবাহ। তার সঙ্গেও পরিচালক রফিক খারাপ ব্যবহার করেছেন বলেও দাবি করেন তিনি।

তবে সেদিন সুচরিতার সঙ্গে কী হয়েছিল, তা তিনি জানেন না উল্লেখ করে সুবাহ লেখেন, ‘সেদিন শুটিংয়ে সুচরিতা আপু এবং আমাদের রফিক শিকদার ভাইয়ের সঙ্গে নাকি অনেক কিছু হয়েছে। কিন্তু তখন আমি আমার শুটিং শেষ করে আমার রুমে চলে আসছি। ব্যাকপ্যাক করছিলাম, তখন ওই ঘটনাগুলো হয়েছিল। আমি ওখানে উপস্থিত ছিলাম না। সবাই যা শুনেছে আমিও তাই শুনেছি। পরে শুনতে পারলাম, সুচরিতা আপু একাই চলে গেছেন কাউকে কিছু না বলেই। কিন্তু আমার সাথে সেই রাতে সুচরিতা আপুর যাওয়ার কথা ছিল ঢাকায়!’

সুচরিতার সঙ্গে আরো ছবিতে কাজ করতে চান জানিয়ে সুবাহ বলেন, ‘সেদিনের ঘটনা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই, তবে এতটুকু বলতে পারি সুচরিতা আপু অনেক ভালো মনের মানুষ এবং তিনি অনেক লেজেন্ডারি অ্যাকট্রেস বাংলাদেশের... ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড পাওয়া। আমি তাঁকে অনেক রেসপেক্ট করি এবং ভালোবাসি। শুধু একটি মুভি নয়, তার সঙ্গে অনেকগুলো ছবি করার ইচ্ছা আছে আমার।’

রফিক শিকদারকে বদরাগি উল্লেখ করে সুবাহ লেখেন, ‘পরিচালক রফিক শিকদার অনেক ভালো মনের মানুষ। অনেক ভালো ডিরেক্টর। তিনি অনেক বদরাগি। অনেক সময় খারাপ ব্যবহার করেছেন আমার সঙ্গে। তার কারণে আমি অনেক সময় সবার আড়ালে কেঁদেছি, কিন্তু কাউকে কিছু বলিনি বা বুঝতেও দিইনি শুধু ‘বসন্ত বিকেল’ ছবির কারণে।’

মোহাম্মদ আসলাম পরিচালিত ‘সমাধান’ ছবির মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে যাত্রা শুরু করেন সুবাহ।এরই মধ্যে দেওয়ান নাজমুল পরিচালিত ‘তোরে কত ভালোবাসি’ ছবিতেও কাজ করছেন তিনি। ‘বসন্ত বিকেল’ তার অভিনীত তৃতীয় চলচ্চিত্র।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

শাহ হুমায়রা সুবাহ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close