Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬
  • ||

‘অ্যাভাটার’কে ছাড়িয়ে গেলো ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’

প্রকাশ:  ২২ জুলাই ২০১৯, ১২:১৭
বিনোদন ডেস্ক
প্রিন্ট icon

মুক্তির পর থেকেই বক্স অফিসে একের পর এক রেকর্ড গড়ে চলেছে মার্ভেল ক্লাসিক অ্যাভেঞ্জার্স সিরিজের শেষ ছবি 'অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম'। চলতি বছরের শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) মুক্তির পর উদ্বোধনী সপ্তাহে ছবিটি কেবল যুক্তরাষ্ট্রেই আয় করে নিয়েছে ৩৫ কোটি ৭১ লাখ ডলার।

আর বর্তমানে সব জল্পনা-কল্পনা উড়িয়ে দিয়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমার খেতাব পেল ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’।

দীর্ঘ দশ বছর ধরে বক্স অফিসে শ্রেষ্ঠত্বের জায়গায় অবস্থান ছিল জেমস ক্যামেরনের ‘অ্যাভাটার’। ২০০৯ সালে মুক্তি পায়‘অ্যাভাটার’ছবিটি। ছবিটি একটি বিজ্ঞানভিত্তিক কল্পকাহিনী। প্রখ্যাত পরিচালক জেমস ক্যামেরন ছবিটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন। মূল চরিত্রগুলোয় অভিনয় করেছেন স্যাম ওর্থিংটন, জোয়ি সালডানা, স্টিফেন ল্যাং, মিচেলে রড্রিগেজ, জোয়েল ডেভিড মুর, জিওভান্নি রিবিসি এবং সিগুর্নি উইভার৷

তবে সম্প্রতি সেই শ্রেষ্ঠত্বের জায়গা দখল করতে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বজুড়ে মুক্তি দেওয়া হয় ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’। শেষ পর্যন্ত ডিজনি ও মার্ভেলের এই প্রচেষ্টা সার্থক হলো।

শনিবার (২০ জুলাই) ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’ গ্লোবাল বক্স অফিসে ২ দশমিক ৭৮৯২ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করে গেছে। এদিকে ‘অ্যাভাটার’র (২০০৯) মোট আয় ২ দশমিক ৭৮৯৭ বিলিয়ন ডলার। একে অতিক্রম করতে প্রয়োজন মাত্র ৫ লাখ ডলার, যা ছুটির দিন রোববারেই (২১ জুলাই) উপার্জন হয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

অল্প অংকের আয়ের জন্য যখন ‘অ্যাভাটার’কে জয় করা থমকে গিয়েছিল, তখন ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’কে ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ সিনেমার মর্যাদা দিতে জুন মাসে পুনরায় বিশ্বজুড়ে মুক্তি দেওয়া হয়। দর্শকদের টানতে মূল সিনেমার সাথে ৬ মিনিটের বিশেষ কিছু দৃশ্য সংযোজন করে মার্ভেল স্টুডিওস।

একইসঙ্গে প্রথম তিন দিনে বিশ্বব্যাপী ছবিটি আয় করে নিয়েছে রেকর্ড ১শ' ২০ কোটি মার্কিন ডলার। এছাড়াও সবচেয়ে কম সময়ে একশ কোটি ডলার আয়ের রেকর্ডও নিজের ঝুলিতে পুরেছে অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম।

এরপরই বক্স অফিসে বিশ্বের সর্বকালের সবচেয়ে বেশি আয় করা শ্রেষ্ঠ সিনেমার স্বীকৃতি পেলো ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’। আর দ্বিতীয় স্থানে চলে গেল দীর্ঘ দশ বছর ধরে শীর্ষে থাকা ‘অ্যাভাটার’। তালিকার তৃতীয় অবস্থানে ‘টাইটানিক’, চতুর্থতে ‘স্টার ওয়ারস: দ্য ফোর্স অ্যাওয়েকেনস’ এবং পঞ্চম স্থানে রইলো ‘অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার’।

ডিজনির কো-চেয়ারম্যান অ্যালান হর্ন ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’র বিজয়ের সুসংবাদ ঘোষণা করে মার্ভেল স্টুডিওস এবং ওয়াল্ট ডিজনি স্টুডিওস দলের সদস্যদের অভিনন্দন জানিয়েছেন। বিশ্বজুড়ে সকল ভক্ত-দর্শকদেরও তিনি ধন্যবাদ জানিয়েছেন।


পূর্বপশ্চিমবিডি/লা-মি-য়া

অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত