• বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  • ||

মাদকে বিষাক্ত জাহাঙ্গীরনগর

প্রকাশ:  ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:১১
সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি

মাদক সেবনের অভয়ারণ্য হয়ে উঠেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ক্যাম্পাস। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে দিনে-দুপুরে চলছে মাদক সেবনের মতো ঘটনা। শিক্ষার্থীসহ বহিরাগতরা এসব আড্ডায় বসে মাদক সেবন করছে। আবাসিক হলগুলোও ব্যবহৃত হচ্ছে মাদক সেবনের নিরাপদ আশ্রয় হিসেবে।

তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, মাদক নির্মূলে নিয়মিত অভিযান চালানো হচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সন্ধ্যা নামলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ, স্কুল এন্ড কলেজ মাঠ, বটতলার পেছনে, ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) ছাদ, পরিবহন চত্বর, বিশমাইল বাস ডিপো, সিডনি ফিল্ড ও সুইজারল্যান্ড নামক স্থানগুলোতে বসে গাঁজা, ইয়াবাসহ মদ সেবনের আড্ডা। এ ছাড়া আবাসিক হলগুলোর বিভিন্ন কক্ষে মাদক সেবন করে থাকেন শিক্ষার্থীরা। তাদের সাথে বহিরাগতরাও ক্যাম্পাসে এসে মাদক সেবন করে। বর্তমানে নারী শিক্ষার্থীরাও মাদকে আসক্ত হয়ে পড়ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, হলগুলোতে কিছু কক্ষ আছে যেখানে নিয়মিত মাদকের আড্ডা বসে। এতে করে আশেপাশের কক্ষের শিক্ষার্থীরা বিরক্ত হয়। ব্যাঘাত ঘটে তাদের পড়াশোনায়। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সালাম-বরকত হলের ৩২০ নম্বর কক্ষে পুলিশের এক কর্মকর্তা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী নিয়মিত মাদক সেবন করতে আসে বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রতিটি হলে এমন ৮ থেকে ১০টি করে কক্ষ রয়েছে যেখানে নিয়মিত মাদক সেবন করে থাকেন শিক্ষার্থী ও বহিরাগতরা।

অভিযোগ রয়েছে, সাভার, নবীনগরসহ সাভারের কলমা নামক স্থান থেকে মাদক কিনে থাকে শিক্ষার্থীরা। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়েও আড়ালে চলে মাদক বিক্রি। সম্প্রতি কলমা থেকে এক কেজি গাঁজাসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে আটকের কথা জানায় পুলিশ। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের পাশে থেকে তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখার এ কর্মকর্তা বলেন, ‘বিভিন্ন সময়ে মাদক সেবনরত অবস্থায় থাকা অনেককেই আমরা আটক করি। এদের মধ্যে বহিরাগতরা যেমন থাকে তেমনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও থাকে। তবে বহিরাগতদের ক্ষেত্রে কোন অ্যাকশনে গেলে দেখা যায়, শিক্ষার্থীরা কোন না কোনভাবে তার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। তাই আমাদের কাজ করাটা কষ্টকর হয়।’

তবে হলগুলোতে মাদক নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব হল প্রশাসনের জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে যত্রতত্র মাদক সেবনের কোন সুযোগ নেই। বহিরাগতরা শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদক সেবন করে। শিক্ষার্থীরা সচেতন না হলে এটি রোধ করা কষ্টকর। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখা মাদক সেবনের মতো ঘটনা বন্ধে নিয়মিত টহল দিয়ে থাকে। খবর পেলে প্রক্টরিয়াল বডিও উপস্থিত হয়।’

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল প্রাধ্যক্ষ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল্লাহ হেল কাফী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে মাদক সেবন করা হয়ে থাকে এটি সত্য। তবে হলে মাদকের আড্ডার বিষয়ে আমার জানা নেই। হলের প্রাধ্যক্ষদের বলা আছে, হলে কেউ মাদক সেবন করলে যেন যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয়।’

মাদক,বিষাক্ত,জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close