• রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
  • ||

কৃষ্ণচূড়ায় রঙিন কুবি ক্যাম্পাস

প্রকাশ:  ২৫ এপ্রিল ২০২২, ১৬:৪১
মোহাম্মদ হাসান, কুবি প্রতিনিধি

বৈশাখ যেমন বাঙালি জন-জীবনে প্রাণের সঞ্চার ঘটায় তেমনি আবার গ্রীষ্মের সৌন্দর্যের বার্তা নিয়ে হাজির হয়। সবুজ পাতার ফাঁকে উজ্জ্বল লাল রঙের কৃষ্ণচূড়ার অপূর্ব বাহারি দৃশ্য পথিকের নয়ন জুড়ায়।

আবহমান কাল ধরেই বাংলার মানুষের কাছে এই ফুলটি ভালোবাসার অনন্য প্রতীক। তপ্ত রৌদ্রে গ্রাম বাংলার সংগ্রামী মানুষের কাছে আবেগ আর প্রশান্তির বহিঃপ্রকাশ এই ফুল। এই কৃষ্ণচূড়াকে নিয়েই কত কবির কবিতা, কত শত গান, কত গল্প। কৃষ্ণচূড়া দেশের সব প্রেক্ষাপটে যেন বিদ্যার প্রান্তর, কৃষ্ণচূড়ার লাল যেন সৃষ্টি করে সংগ্রামী প্রতিকী। সেই সাথে ভালোবাসার পরশে ভরিয়ে দিয়ে যায় সবার মন।

কবিগুরু রবি ঠাকুরের ভাষায়,

'গন্ধে উদাস হওয়ার মতো উড়ে

তোমার উত্তরী কর্ণে তোমার কৃষ্ণচূড়ার মঞ্জরি...'।

আবার এই কৃষ্ণচূড়া যেন সংগ্রামের প্রতীক। শহীদদের তাজা রক্তের মত টগবগে।

কবি শামসুর রাহমান লিখেছেন-

‘আবার ফুটেছে দ্যাখো কৃষ্ণচূড়া থরে থরে শহরের পথে

কেমন নিবিড় হয়ে। কখনো মিছিলে কখনো-বা একা

হেঁটে যেতে যেতে মনে হয়- ফুল নয় ওরা

শহীদের ঝলকিত রক্তের বুদ্বুদ, স্মৃতিগন্ধে ভরপুর।’

প্রতিবছর লাল মাটির ক্যাম্পাস কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে গ্রীষ্মে চোখ ধাঁধানো টুকটুকে সিঁদুর লাল কৃষ্ণচূড়ায় সাঁজে ৷ দূর থেকে দেখলে মনে হয় বৈশাখের চামড়া পোড়া রৌদ্রের সবটুকু গায়ে জড়িয়ে নিয়েছে এ রক্তলাল পুষ্পরাজি।

জীবনের রুক্ষতা আর ভ্যাপসা গরমে ক্যাম্পাসের এ কৃষ্ণচূড়া গাছের নিচে বসে এক প্রশান্তির নিশ্বাস নিতে ছুটে আসে দর্শনার্থীরা, কিছুক্ষণের জন্য হলেও মন হারিয়ে যায় প্রকৃতির মাঝে। কবি সাহিত্যিকদের আনাগোনা থাকে পুরো গ্রীষ্ম জুড়ে।

বৈশাখের শুরুতে ফুল ফুটতে শুরু করে গাছগুলোতে। এখন পুরো গাছগুলো জুড়ে লাল ফুলের সমারোহ, লাল রঙের ফুল ঢেকে দিয়েছে গাছের সবুজ পাতাগুলোকে। কৃষ্ণচূড়া ফুলের সৌন্দর্য কুবি ক্যাম্পাসকে অন্য রকম শোভাবর্ধন করে তুলে। ফুলের সৌন্দর্যে মুগ্ধ পথিক, ভুলে যায় তার ক্লান্তি।

এ বছরেও ব্যতিক্রম হয়নি, ৫০ একরের পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে টগবগে লাল কৃষ্ণচূড়ার সৌন্দর্য শোভা পেয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে শুরু করে বিভিন্ন ভবন ও হলগুলোর সামনে কৃষ্ণচূড়া ফুলের সৌন্দর্য বিরাজ করছে। প্রশাসনিক ভবন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ, ব্যবসা অনুষদ, বিজ্ঞান অনুষদ পর্যন্ত কৃষ্ণচূড়ায় ঘেরা। তবে আলাদা করে বলতে হয় কুবির কৃষ্ণচূড়া রোড। বিশাল রাস্তা জুড়ে যতটুকু চোখ যায় কেবল কৃষ্ণচূড়ার দেখা মিলে। সবুজ পাতার মধ্যে লাল এই যেন জীবন্ত এক নিসর্গ।

ক্যাম্পাসের কৃষ্ণচূড়া রোডে বিকাল কিংবা সন্ধ্যা বা রাতে দেখা মিলে বন্ধুদের আড্ডা। চায়ের কাপ হাতে নিয়ে কেউ একজন গান ধরে, সে গানের সঙ্গে সুর মেলায় অন্যরা। কবিতার আবৃত্তির মাঝে ক্যাম্পাসের কৃষ্ণচূড়ার সৌন্দর্য ফুটে ওঠে। কেউ আবার ফুল দিয়ে প্রিয় মানুষটিকে রাগ ভাঙ্গিয়ে দেয়।

এভাবেই, কৃষ্ণচূড়া প্রতিবছর গ্রীষ্মে সৌন্দর্য ছড়িয়ে দেয় পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এমএইচ/জেএস

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close