• শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
  • ||

শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর অনলাইনে আলোচনা চলছে

প্রকাশ:  ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ০১:৩৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে আলোচনা করছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শনিবার (২২ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১ টার পরে এ আলোচনা শুরু হয়।

এর আগে চলমান সংকট সমাধানে সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষক প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বৈঠকে বসেন শিক্ষামন্ত্রী।

শিক্ষকদের প্রতিনিধি দলের মধ্যে ছিলেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. তুলসী কুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোহাম্মদ মুহিবুল আলম, ফিজিক্যাল সায়েন্সেস অনুষদেন ডিন ড. মো. রাশেদ তালুকদার, অ্যাপ্লায়েড সায়েন্সেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আরিফুল ইসলাম ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. খায়রুল ইসলাম রুবেল।

এসময় শিক্ষামন্ত্রী সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের আন্দোলন নিয়ে আলোচনায় বসার আহ্বান জানান। ডা. দীপু মনি বলেন, শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা আমাদের সঙ্গে আলোচনায় বসুক আমরা সেটা চাই। আলোচনাই সমস্যা সমাধানের সবচেয়ে ভালো পন্থা। আমি আলোচনার জন্য প্রস্তুত, শিক্ষকদের সঙ্গে অনশনকারীরা কথা বলতে পারছেন না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনে ‘সন্দেহ’ পোষণ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা পরিষ্কার না এই আন্দোলনে আরও কেউ জড়িত কি না, তাদের ইন্ধনে কেউ কলকাঠি নাড়ছে কি না? তবে ওইদিনের ঘটনা তুলে ধরে তিনি বলেন, পুলিশি অ্যাকশনটা দুঃখজনক, তেমনি শিক্ষকদের লাঞ্ছিত করাও দুঃখজনক। এরপর শিক্ষামন্ত্রীর প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে রাতে আন্দোলনকারীদের পক্ষ থেকে জানানো হয় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সঙ্গে অনলাইনে কথা বলতে চান সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারীদের পক্ষ থেকে বলা হয়, আমরা শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসতে চাই। এক্ষেত্রে অনলাইনে প্ল্যাটফর্মে আমরা বসতে চাই। এছাড়াও শিক্ষামন্ত্রী সরাসরি সিলেট না আসলেও মন্ত্রীর প্রতিনিধি আসলে তাদের সঙ্গে বসতে রাজী আছি।

এ সময় তাদের পক্ষ থেকে উপাচার্যের পদত্যাগের বিষয়ে অনড় থাকা সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখ করা হয়। টানা দশ দিনের আন্দোলনে শনিবার উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে কাফনের কাপড় পরিধানের মাধ্যমে মৌন মিছিল কর্মসূচি পালন করে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও এদিন রাত ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্ত্বর এলাকায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচি আয়োজন করা হয়।

গত ১৩ জানুয়ারি রাতে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রাধ্যক্ষ জাফরিন আহমেদের বিরুদ্ধে অসদাচরণের অভিযোগ তুলে তার পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন হলের ছাত্রীরা। পরে ১৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ছাত্রীদের আন্দোলনে হামলা চালায় ছাত্রলীগ।

এর পরের দিন বিকেলে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনে উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করেন। তখন শিক্ষার্থীদের ব্যাপক লাঠিপেটা করা হয় এবং শিক্ষার্থীদের লক্ষ্য করে শটগানের গুলি ও সাউন্ড গ্রেনেড ছোড়ে পুলিশ।

পরে ওইদিন রাতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ও শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয় কর্তৃপক্ষ। শিক্ষার্থীরা তা উপেক্ষা করে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন।

পিপি/জেআর

শাবিপ্রবি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close