• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  • ||

অনশনে বসতে আ. লীগ কার্যালয়ে ইডেনের বহিষ্কৃত নেত্রীরা

প্রকাশ:  ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:১৬
নিজস্ব প্রতিবেদক

ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করার প্রতিবাদে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের সভাপতির কার্যালয়ে আমরণ অনশন করতে অবস্থান নিয়েছে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত নেত্রীরা। সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কার্যালয়ে পৌঁছান তারা।

অভ্যন্তরীণ কোন্দলকে কেন্দ্র করে রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) ছাত্রলীগের ২ গ্রুপের মারামারির ঘটনার পর ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত ও ১৭ নেতাকর্মীকে স্থায়ী বহিষ্কার করেছে ছাত্রলীগ৷ এর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করে সোমবার বেলা ১১টায় ইডেন কলেজে সংবাদ সম্মেলন করেন বহিষ্কৃত নেত্রীরা। সেখানে তারা জানান, বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না করলে আমরণ অনশনে বসবেন। এর ৪০ মিনিট পর সংবাদ সম্মেলন শেষে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন তারা। এর কিছু সময় পর কার্যালয়ে পৌঁছান।

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সদ্য বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি সুস্মিতা বাড়ৈ বলেন, আমাদের অন্যায়ভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। আমরা এই বহিষ্কারাদেশ মানি না। সুষ্ঠু তদন্ত ছাড়া আমাদের কেন বহিষ্কার? আগে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকে বহিষ্কার করতে হবে। তাদের বিরুদ্ধে হাজার হাজার অভিযোগের প্রমাণ থাকা সত্ত্বে তারা কেন পার পেয়ে যাচ্ছে।

এসময় তিনি জানান, বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না করলে আমরণ অনশন করবেন।

এর আগে দুইপক্ষের রেষারেষি ও মারামারির ঘটনায় রোববার রাতে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত করা হয়। একই সঙ্গে দল থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয় ১৬ জনকে।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এই বহিষ্কারাদেশ দেওয়া হয়।

এতে বলা হয়, শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপে জড়িত থাকার অপরাধে, প্রাথমিকভাবে প্রাপ্ত প্রমাণের ভিত্তিতে ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সোনালি আক্তার, সুস্মিতা বাড়ৈ, জেবুন্নাহার শিলা, কল্পনা বেগম, জান্নাতুল ফেরদৌস, আফরোজা রশ্মি, মারজানা ঊর্মি, সানজিদা পারভীন চৌধুরী, এস এম মিলি, সাদিয়া জাহান সাথী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফাতেমা খানম বিন্তি ও সাংগঠনিক সম্পাদক সামিয়া আক্তার বৈশাখী এবং কর্মী রাফিয়া নীলা, নোশিন শার্মিলী, জান্নাতুল লিমা, সূচনা আক্তারকে ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হলো।

এর আগে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার সিট বাণিজ্য ও চাঁদাবাজি নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলেন কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসী। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে।

এ ঘটনায় ২৪ সেপ্টেম্বর মধ্যরাতে বিক্ষোভ করেন ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা। এতে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ফলে পরের দিন ২৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে ইডেন কলেজের অডিটোরিয়ামের সামনে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ হয়। এতে ১০ জন আহত হন। এর মধ্যে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

নেত্রী,বহিষ্কৃত,ইডেন কলেজ,কার্যালয়,অনশন,আ. লীগ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close