• মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
  • ||

মে দিবস: গবির নিরাপত্তা সামলান তৃতীয় লিঙ্গের প্রহরী

প্রকাশ:  ০২ মে ২০২২, ১৬:৩৯
সানজিদা জান্নাত পিংকি

প্রথমবারের মতো ২০১৮ সালের অক্টোবরে মূল ফটকে তৃতীয় লিঙ্গের কর্মীদের কাজের সুযোগ প্রদান করে ইতিহাস সৃষ্টি করে সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয় (গবি)। এরপর পেরিয়ে গেছে কয়েকটি বছর। কর্মস্থলে তারা কেমন সময় কাটাচ্ছেন, মে দিবস ঘিরে তাদের চাওয়া-পাওয়া কি, তা জানার চেষ্টা করেছেন সানজিদা জান্নাত পিংকি।

নুর আলম নীলা: গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে আসার আগে সম্মান জিনিসটা বুঝতাম না। এখন কাজ করে খাচ্ছি। শিক্ষক-শিক্ষার্থী সবাই আমাদের সম্মান করে। আগে রাস্তাঘাটে চলাফেরা করার সময় মানুষের ধিক্কার ছাড়া কিছু পাইনি। কিন্তু এখানে কাজের সুযোগ আমাকে নতুন জীবন দিয়েছে। তবে অনুরোধ থাকবে, আমাদের বেতন যেন একটু বাড়িয়ে দেওয়া হয়। এই বেতনে চলতে কষ্ট হয়। তৃতীয় লিঙ্গের অনেকে বাইরে কালেকশন করছে। যদি প্রতিটা সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অন্তত ৫ জন করেও নেওয়া হয়, তবে আর কেউ রাস্তাঘাট, বাসাবাড়ি, দোকানপাটে টাকা তুলবে না।

সুমন মিয়া : আমার গুরু অনন্যার মাধ্যমে চাকরির সুযোগ হয়েছে। তারপর এ বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষকের উদ্যোগে আজকের এই অবস্থান। এখানে যখন নতুন আসি তখন ভাবতাম, আমাদের সাথে কেউ কথা বলবে কি না। প্রায় ৪ বছর ধরে কাজ করার সুবাদে সবার সাথে আন্তরিকতা তৈরি হয়ে গেছে৷ সবাই ভালোবাসে বলেই কাজ করতে পারছি। কিন্তু দু:খের বিষয়, সবকিছুর যেভাবে দাম বাড়ছে, সেভাবে আমাদের বেতন বাড়ছে না। বর্তমান বাজার দরের যে অবস্থা, তাতে আমাদের চলতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। অনেক সময় রোদ-বৃষ্টিতে ভিজতে হয়। সেক্ষেত্রে ছাতা, রেইনকোর্ট, শীতের পোশাক ইত্যাদি প্রদান করলে ভালো হয়।

সাহেদা সাহেদ: এখানে কাজ করতে অনেক ভালো লাগে। আমরা যেভাবে কাজ করছি, সেভাবে যেন আমাদের অন্যরাও সুযোগ পায়। সরকারের কাছে অনেক কিছু চাওয়ার আছে। তবে এখন আমাদের জন্য কোটা চাই। কোথাও আবেদন করতে গেলে আমাদের কোটা নাই। কি হিসেবে আমরা আবেদন করব? পহেলা মে শ্রমিক দিবস। প্রত্যাশা থাকবে, সকল শ্রমিক ভাই-বোন যেন তাদের প্রাপ্ত সম্মান, সভ্য কাজের জায়গা, ভালোভাবে কাজের সুযোগ এবং সঠিক মূল্যায়ন পায়।

রাশেদ সোনালী: বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ এবং মানুষ অনেক ভালো। সবাই অনেক ভালো ব্যবহার করে। আমাদের কমিউনিটির মানুষজন যারা, তারা যেন আমাদের দেখে উৎসাহিত হয়। দেশে ভালো ভালো যত কোম্পানি, এনজিও আছে তারা যেন আমাদের পাশে দাঁড়ায়। আমাদের মধ্যে অনেকের শিক্ষাগত যোগ্যতা বেশি। তাদের যেন যোগ্যতা অনুযায়ী ভালো জায়গায় কাজের সুযোগ দেওয়া হয়। শিক্ষাক্ষেত্রে আমাদের দুরবস্থা অনেক বেশি। আমাদের শিক্ষার একটা সুন্দর পরিবেশ ও সুযোগ তৈরি করে দেওয়া হোক। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ, আমাদের সুযোগ-সুবিধাগুলো যেন বাড়িয়ে দেওয়া হয়।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসজেপি/জেএস

গণ বিশ্ববিদ্যালয়
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close