• বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

নিষেধাজ্ঞা ভেঙে জাবিতে বিক্ষোভ-মিছিল

প্রকাশ:  ২৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৫:২৩
নিজস্ব প্রতিবেদক

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) সচল করে শিক্ষার স্বাভাবিক পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সভা সমাবেশ ও মিছিলের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে এ মিছিলে অংশ নেয় শত শত শিক্ষার্থী।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মুরাদ চত্বর থেকে মিছিলটি শুরু হয়। এরপর পুরাতন প্রশাসনিক ভবন হয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেয়। পরবর্তীতে সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন আন্দোলনকারীরা।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খুলে দিয়ে শিক্ষার স্বাভাবিক পরিবেশ নিশ্চিত করা, উপাচার্য অপসারণের দাবিতে চলা আন্দোলনে ছাত্রলীগের হামলার বিচারসহ তিনদফা দাবিতে 'দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর' ব্যানারে পূর্বঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল করেছে করে আন্দোলনকারীরা ।

সমাবেশে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগরে সমন্বয়ক অধ্যাপক রায়হান রাইন বলেন, চারমাস হতে চললো শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো বিষয়ের সুরাহা হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, হল খালি করে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে আমরা বিক্ষোভ মিছিল করছি।

তিনি বলেন, প্রশাসনকে জানা উচিৎ কোনোভাবেই এই আন্দোলন দমন করা যাবে না। আমাদের তিন দফা দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবো। হল ভ্যাকেন্টের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে মেয়াদ উত্তীর্ণ সিন্ডিকেট সদস্যদের মতের ভিত্তিতে। সুতরাং, হল ভ্যাকেন্টের এই অবৈধ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে।

এসময় আগামী ৩ ডিসেম্বর উপাচার্যের দুর্নীতির খতিয়ান পুস্তিকা আকারে প্রকাশ করার ঘোষণাও দেন তিনি।

সমাবেশে ছাত্রফ্রন্ট বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সুস্মিতা মরিয়ম বলেন, সারাদেশ জানে জাহাঙ্গীরনগরে দুর্নীতি হয়েছে। যারা টাকা পেয়েছে তারা সারাদেশের মানুষের সামনে স্বীকার করেছে যে টাকা পেয়েছে। উপাচার্য যদি দুর্নীতি না করে থাকেন তাহলে সারাদেশের মানুষের সামনে সেটা প্রমাণ করুন যে উপাচার্য দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত নন। দুর্নীতিবাজকে রক্ষা করার জন্য অগণতান্ত্রিকভাবে হল বন্ধ করে রাখা হয়েছে। এভাবে ১৫ হাজার শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন হুমকির মধ্যে ফেলা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের জাবি শাখার মুখপাত্র খান মুনতাসির আরমান বলেন, ফারজানা ইসলামকে ব্যঙ্গ করার জন্য একজন শিক্ষার্থীর নামে মামলা করা হয়েছে। কিন্তু অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে যে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে তার মোকাবিলা এই প্রশাসন করতে পারে নাই।

পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

জাবি,বিক্ষোভ,জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close