• বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই ২০২০, ১ শ্রাবণ ১৪২৭
  • ||

আজ পদত্যাগ করছেন জাবি ভিসি?

প্রকাশ:  ০১ অক্টোবর ২০১৯, ১২:১০
নিজস্ব প্রতিবেদক

নানা আলোচনা সমালোচনা পর অবশেষে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক খোন্দকার নাসির উদ্দিন পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন। তিনি পদে থাকতে নানা ফন্দি-ফিকির করেও শেষ পর্যন্ত টিকে থাকতে পারেননি। এদিকে, উপাচার্য ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’–এর ব্যানারে এক মাস ধরে আন্দোলন করে আসছে জাবির শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ। তবে কি আজ উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগ অভিযুক্ত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামও পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন? গুঞ্জন উঠেছে জাবির ভিসি আজ যে কোন সময় পদত্যাগ করতে পারেন।

ভিসি নাসিরের পদত্যাগের পর জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনকারীদেরও প্রত্যাশা ভিসি ফারজানা স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করবেন।

সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার পাদদেশে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আয়োজিত উপাচার্যকে কালো পতাকা প্রদর্শন কর্মসূচিতে উপাচার্যকে পদত্যাগে ২৪ ঘণ্টা সময় বেধে দেন আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এ সময় তাঁরা মঙ্গলবারের মধ্যে উপাচার্য পদত্যাগ না করলে বুধবার থেকে দুদিন সর্বাত্মক ধর্মঘট ডাক দেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ নিয়ে উপাচার্য ফারজানা ইসলামের ‘মধ্যস্থতায়’ ছাত্রলীগের নেতাদের বড় অঙ্কের আর্থিক সুবিধা দেওয়ার অভিযোগ তদন্তসহ তিন দফা দাবিতে তাঁদের এ আন্দোলন। এ ছাড়া ‘পূর্ণাঙ্গ মহাপরিকল্পনা’ ছাড়া এসব উন্নয়ন প্রকল্প বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশের ক্ষতি করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ তাঁদের। এসব দাবির বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে দুদফা বৈঠকে সমঝোতা না হওয়ায় উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ফারজানা ইসলাম।

কর্মসূচিতে অংশ নেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মির্জা তাসলিমা সুলতানা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শীর্ষ পদে দুর্নীতিগ্রস্ত কাউকে দীর্ঘ সময় রেখে দিলে কোনোভাবেই বিশ্ববিদ্যালয় সুনাম অর্জন করা যাবে না। তাই দুর্নীতিগ্রস্ত এই উপাচার্যের পদত্যাগ ও তার দুর্নীতির যথাযথ বিচার এবং এই দুর্নীতিতে সহযোগীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে।

কর্মসূচিতে অংশ নেয়া সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, ভিসির পদত্যাগের আলটিমেটাম শেষ হতে চলেছে। কিন্তু ভিসি এখন পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের দাবির প্রতি কর্ণপাত করেননি। আর মাত্র একদিন সময় আছে। এ সময়ের মধ্যে পদত্যাগ না করলে ভিসিকে লাল কার্ড দেখানো হবে।

কর্মসূচিতে অধ্যাপক আবদুল জব্বার হাওলাদার, অধ্যাপক খবির উদ্দিন, অধ্যাপক কামরুল আহসান, অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভূঁইয়া, অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, অধ্যাপক মির্জা তাসলিমা সুলতানা, অধ্যাপক শামীমা সুলতানা, অধ্যাপক নাজমুল হাসান তালুকদার প্রমুখসহ ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্রফ্রন্ট, জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোট ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের জাবি শাখার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এক সংবাদ সম্মেলনে স্বেচ্ছায় পদত্যাগের জন্য ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়নের জন্য গত বছরের ২৩ অক্টোবর ১ হাজার ৪৪৫ কোটি টাকা অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (একনেক)। এই প্রকল্পের প্রথম ধাপে পাঁচটি আবাসিক হল নির্মাণের জন্য গত ১ মে টেন্ডার আহ্বান করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কিন্তু টেন্ডার প্রক্রিয়ায় অনিয়ম, ছাত্রলীগের টেন্ডার ছিনতাই, মাস্টারপ্ল্যানে অস্বচ্ছতা-অপরিকল্পনা, গাছ কাটা ও সর্বশেষ ছাত্রলীগকে দুই কোটি টাকা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে উপাচার্যের বিরুদ্ধে। এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিন দফা দাবিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি পক্ষ ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলন করে আসছিলেন।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

জাবি,শিক্ষক-শিক্ষার্থী,উপাচার্যের পদত্যাগ,আন্দোলনকারী
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close