• রোববার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭
  • ||
শিরোনাম

তুচ্ছ ঘটনার জেরে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মারামারি

প্রকাশ:  ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:৩৫
জাবি প্রতিনিধি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে তুচ্ছ ঘটনার জেরে দুই হলের ছাত্রলীগকর্মীদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে।

এতে ঘটনাস্থলে সাব্বির হোসেন (নৃ-বিজ্ঞান, ৪৪) নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীর মাথা ফেটে গেছে। এ ঘটনার বিচার চেয়ে এক পক্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ পত্র দিয়েছে। দুই গ্রুপেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আবু সুফিয়ান চঞ্চলের অনুসারী বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে এক পরীক্ষার্থীকে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিয়ারিং (সি.এস.ই) ভবনের পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছে দিতে যান শহীদ রফিক-জব্বার হলের ছাত্রলীগকর্মী সাব্বির হোসেন। কেন্দ্রে যাওয়ার মুখে টাকার বিনিময়ে ব্যাগ, মুঠোফোন ইত্যাদি জমা রাখার স্টল দিয়ে ব্যবসা করছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের ছাত্রলীগ কর্মী জাকির হোসেন (দর্শন, ৪৬ ব্যাচ)।

এ সময় সাব্বির হোসেনের সাথে থাকা পরীক্ষার্থীকে মুঠোফোন, ব্যাগ স্টলে জমা রেখে যাওয়ার কথা বলেন জাকির। সাব্বির হোসেন তাতে অসম্মতি জানালে জাকির ক্ষিপ্ত হয়ে উচ্চবাক্য করেন। পরে দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা ও ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে দু’জনের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত সহকারী প্রক্টর রনি হুসাইন তাঁদেরকে থামিয়ে দেন।

এ ঘটনার পর তারা দু’জনেই হল থেকে ছাত্রলীগকর্মীদের ফোন দিয়ে ডেকে আনেন। কিছুক্ষণ পরে দুই হলের ১৫-২০ ছাত্রলীগ কর্মী ঘটনাস্থলে যান এবং উভয়ের মধ্যে মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এক পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের ছাত্রলীগকর্মী রিফাত ও মুন্না ‘কাঁচের বোতল’ দিয়ে সাব্বির হোসেনের মাথায় আঘাত করলে তার (সাব্বির) মাথা ফেটে রক্ত বের হয়। পরে সাব্বির হোসেনহ আরও ৪ জন আহতকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে অভিযুক্ত জাকির হোসেনের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এদিকে এ ঘটনায় শহীদ রফিক-জব্বার হলের ছাত্রলীগকর্মীরা বিচারের দাবিতে প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, ছাত্রলীগকর্মী সাব্বির হোসেন নাহিদ একজন ভর্তিচছু শিক্ষার্থীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের সামনে সিএসই ভবনে পরীক্ষার হলে পৌছে দেওয়ার জন্য নিয়ে যান। এসময় নাহিদের সাথে থাকা পরীক্ষার্থীকে জাকির হোসেন তার স্টলে ‘মোবাইল, ব্যাগ’ রাখার জন্য জোর জবরদস্তি করেন। নাহিদ এর প্রতিবাদ করলে জাকিরসহ বঙ্গবন্ধু হলের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীরা মিলে তাকে মারধর করেন। আমরা এ ঘটনার সাথে জড়িত জাকিরসহ সকলের শাস্তি দাবি করছি।

এ ঘটনায় আহত সাব্বির হোসেনের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ফিরোজ উল হাসান জানান, ‘বিষয়টি যেহেতু আমাদের প্রক্টরিয়াল বডিরি উপস্থিতিতে ঘটেছে তাই আমরা নিজেরাই প্রতিবেদন তৈরি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা বোর্ডে সেটি পাঠিয়ে দিয়েছি। আমি একটি পক্ষের কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

পূর্বপশ্চিমবিডি/আরএইচ

জাবি
  • আরও পড়তে ক্লিক করুন:
  • জাবি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close