• শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||
শিরোনাম

ডিআইজি মিজানের অবৈধ সম্পদ গচ্ছিত ভাগ্নের কাছে

দুদকের অনুসন্ধান

প্রকাশ:  ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:০০
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

বরখাস্ত হওয়া পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমান তার অবৈধ সম্পদ গচ্ছিত রেখেছেন কারাগারে থাকা তার ভাগ্নে এসআই মাহমুদুল হাসানের কাছে। মামা-ভাগ্নের আয়কর নথি খতিয়ে দেখে এ তথ্য পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদক সূত্র জানায়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কর অঞ্চল-১৪-এর করদাতা মাহমুদুল হাসানের আয়কর নথি এখন দুদকের কাছে রয়েছে। নথি খতিয়ে দেখার পর দুদকের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ডিআইজি মিজান তার সম্পদের একটি অংশ ভাগ্নের কাছে গচ্ছিত রেখেছেন। দীর্ঘ অনুসন্ধানে ডিআইজি মিজানের আরও অবৈধ সম্পদের খোঁজ পাওয়া সম্ভব।

উল্লেখ্য, অবৈধ সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে গত ২৪ জুন দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে (ঢাকা-১) কমিশনের পরিচালক মঞ্জুর মোর্শেদ বাদী হয়ে মামলা করেন। এতে ডিআইজি মিজান ছাড়াও তার স্ত্রী সোহেলিয়া আনার রত্না, ভাই মাহবুবুর রহমান ও ভাগ্নে মাহমুদুল হাসানকে আসামি করা হয়।

মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে ৩ কোটি ২৮ লাখ ৬৮ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন ও ৩ কোটি ৭ লাখ ৫ হাজার টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ আনা হয়। মাহমুদুল হাসান ২০১৭ সালের ২৬ আগস্ট উপ-পরিদর্শক হিসেবে যোগ দেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামি মিজানুর রহমান তার ভাগ্নে মাহমুদুল হাসানের নামে ২৪ লাখ ২১ হাজার ২২৫ টাকায় গুলশান-১ এর পুলিশ প্লাজা কনকর্ডে ২১১ বর্গফুট আয়তনের একটি দোকান বরাদ্দ গ্রহণ করেন। মিজানুর রহমান নিজে নমিনি হয়ে তার ভাগ্নে মাহমুদুল হাসানের নামে ২০১৩ সালের ২৫ নভেম্বর একটি ব্যাংকে এফডিআর একাউন্ট করে ৩০ লাখ টাকা জমা করেন। তবে দুদকের অনুসন্ধান চালু হওয়ার পর সে টাকা ভাঙিয়ে সুদে-আসলে ৩৮ লাখ ৮৮ হাজার ৫৭ টাকা তুলে ফেলেন। সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন


পূর্বপশ্চিমবিডি/কেএম

দুদকের অনুসন্ধান,ডিআইজি মিজান,অবৈধ সম্পদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
Latest news
close