• শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ১৩ মাঘ ১৪২৯
  • ||

সাইবার হয়রানির শিকার নারী আইনজীবী

প্রকাশ:  ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:১৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেসবুকে পরিচয়। নিজেকে ব্যারিস্টার ও প্রবাসী দাবি করে দেশে মামলা চালানো দায়িত্ব দেন এক নারী আইনজীবীকে। পরে এসবের সত্যতা না মিললে দেন বিয়ের প্রস্তাব। তাতে রাজি না হওয়ায় ওই নারীর নামে একাধিক অ্যাকাউন্ট খুলে ছড়ান মিথ্যা ও অশ্লীল তথ্য। দেন হত্যার হুমকিও। এভাবেই খায়রুল বাশার ওরফে বাচ্চু নামে এক প্রতারকের সাইবার হয়রানির শিকার হয়েছেন অ্যাডভোকেট মরিয়ম সুলতানা। অতিষ্ঠ হয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করেন। পুলিশের তদন্তে অভিযোগ প্রমাণ হলেও তাদের তৎপরতা এখনো থামেনি বলে অভিযোগ তার।

মামলা ও তদন্ত প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালে ফেসবুকে খায়রুলের সঙ্গে পরিচয় অ্যাডভোকেট মরিয়মের। ব্যারিস্টার পরিচয় দিয়ে খায়রুল জানান, রাজনৈতিক মামলার কারণে বাধ্য হয়ে মালয়েশিয়ায় থাকছেন। তিনি মরিয়মকে তার মামলাগুলো পরিচালনার দায়িত্ব দেন। একপর্যায়ে মরিয়ম জানতে পারেন, খায়রুল ব্যারিস্টার নন এবং এমন কোনো মামলার অস্তিত্বই নেই। তবে বিষয়টি এড়িয়ে যান খায়রুল। পরবর্তীতে মরিয়মকে বিয়ের প্রস্তাব দেন তিনি। এতে রাজি না হয়ে খায়রুলের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করেন মরিয়ম। ক্ষিপ্ত হয়ে মরিয়মের ফেসবুক আইডি হ্যাক ও একাধিক ভুয়া আইডি খুলে অশ্লীল কর্মকাণ্ড করতে থাকেন খায়রুল।

সম্পর্কিত খবর

    এ ঘটনায় ২০২১ সালের ১২ ডিসেম্বরে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার করেন মরিয়ম। মামলার তদন্তভার যায় পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন সেলের ওপর। চলতি বছরের ৩১ মার্চ তদন্ত প্রতিবেদন দেন পরিদর্শক নাজমুল নিশাত। তদন্তে অভিযুক্ত খায়রুল বাশারের বিরুদ্ধে হয়রানি, ফেসবুকে ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলে অশ্লীল ছবি ও মিথ্য তথ্য ছড়ানোর অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

    পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন সেলের পরিদর্শক নাজমুল নিশাত বলেন, ‘মামলার বাদী মরিয়ম সুলতানার ফেসবুক আইডি হ্যাক করার পেছনে আসামি খায়রুল বাশারের জড়িত থাকার বিষয়টি তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। আদালতে সে অনুযায়ী অভিযোগপত্র পেশ করেছি।’

    ভুক্তভোগী অ্যাডভোকেট মরিয়ম সুলতানা বলেন, ‘খায়রুল বাশার ও তার সহযোগীরা এখনো বিভিন্ন ভুয়া আইডির মাধ্যমে আমাকে হুমকি দিচ্ছে ও ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। আমাকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। মেহেদী হাসান বাপ্পী নামে খায়রুলের এক সহযোগী আমাকে প্রতিনিয়ত অনুসরণ করছে। প্রাণভয়ে স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারছি না।’

    তবে মালয়েশিয়ায় অবস্থানের কারণে অভিযুক্ত খায়রুল বাশারের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close