• বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮
  • ||

আইনজীবী তালিকাভুক্তির মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত

প্রকাশ:  ১৫ জুলাই ২০২১, ১৭:৪৬
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু ঊর্ধ্বগতিতে থাকায় সরকার ঘোষিত লকডাউন ও বিধিনিষেধের কারণে বার কাউন্সিলের আইনজীবী তালিকাভুক্তির মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। ২৫ জুলাই থেকে এ মৌখিক পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিলো।

বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সরকার ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধে চলমান থাকার কারণে ২৫ জুলাই থেকে শুরু হতে যাওয়া বার কাউন্সিলের আইনজীবী তালিকাভুক্তির মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত করা হলো। বার কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে মৌখিক পরীক্ষার তারিখ জানানো হবে।

গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর ও চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ব্যক্তিরা মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন।

এর আগের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিলো, বার কাউন্সিলের ধারা ৬০বি অনুযায়ী যাঁরা সর্বশেষ দুটি (২০১৮ ও ২০১৬) এনরোলমেন্ট পরীক্ষার যেকোনো একটিতে অনুত্তীর্ণ হয়েছেন কিংবা অংশগ্রহণ করতে পারেননি, তাঁরা পরীক্ষার ফি বাবদ ১ হাজার টাকা ও ফরম ফি বাবদ ৫০০ টাকা জমা দিয়ে মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলার কারণে লিখিত পরীক্ষা দুবার নেয় বার কাউন্সিল। ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় ৯টি কেন্দ্রে। আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, শেখ বোরহান উদ্দিন পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, মোহাম্মাদপুর মহিলা কলেজ, মোহাম্মাদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, সেন্ট্রাল ইউমেন্স কলেজ, বিসিএসআইআর হাইস্কুল, গভর্নমেন্ট মোহাম্মাদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ।

এর মধ্যে মোহাম্মদপুর মহিলা কলেজ, মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, বিসিএসআইআর উচ্চবিদ্যালয়, সরকারি মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের লিখিত পরীক্ষা বাতিল করা হয়। পরে বাতিল ৫টি কেন্দ্রের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি।

২০২০ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি প্রায় ৭০ হাজার আইন শিক্ষানবিশ আইনজীবী এমসিকিউ পরীক্ষায় অংশ নেন। এর মধ্যে এমসিকিউ উত্তীর্ণ হন মাত্র ৮ হাজার ৭৬৪ শিক্ষার্থী। এ ছাড়া ২০১৭ সালে ৩৪ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্য থেকে লিখিত পরীক্ষায় দ্বিতীয় ও শেষবারের মতো বাদ পড়া ৩ হাজার ৫৯০ শিক্ষার্থীসহ ১২ হাজার ৮৭৮ জন শিক্ষার্থী এবারের লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেন।

এর আগে ২০২০ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর লিখিত পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয় বার কাউন্সিল। কিন্তু করোনার কারণে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় সরকার। তাই করোনার সংক্রমণের মধ্যে পূর্বের নোটিশ অনুসারে পরীক্ষা নিতে পারেনি বার কাউন্সিল। পরে ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হয়।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসসিএম

আইনজীবী,তালিকাভুক্তি,মৌখিক পরীক্ষা,স্থগিত
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close