• শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

করোনা: উপদেষ্টা কমিটির সুপারিশ জানতে চায় হাই কোর্ট

প্রকাশ:  ১৮ মে ২০২০, ১৫:৪৯
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সরকারের গঠিত উপদেষ্টা কমিটি কি কি পদক্ষেপের সুপারিশ করেছে সে বিষয়ে প্রতিবেদন চেয়েছে হাই কোট। একই সাথে করোনার সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পেতে দেশের সকল বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকের দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্যদের পিপিই, গ্লোভস, সার্জিক্যাল মাস্ক সরবরাহসহ স্বাস্থ্য সুরক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ নিশ্চিত করতে সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

স্বাস্থ্য সচিব, অতিরিক্ত সচিব (হাসপাতাল) এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের প্রতি এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সোমবার(১৮ মে) একটি রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারম্যানকে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। রিট আবেদনের পক্ষে ভার্চুয়াল শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

শুনানিতে অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ বলেন, চিকিৎসার অভাবে মানুষের মৃত্যু মৌলিক অধিকারের লংঘন। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে সাধারন জ্বর, সর্দি, গলা ব্যথার বা অন্যান্য যেকোন রোগের চিকিৎসা নিতে গেলে করোনার ভয়ে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকের ডাক্তারদের চিকিৎসায় অনিহা দেখা যাচ্ছে। বেসরকারি হাসপাতালে ও ক্লিনিকে রোগীরা চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে না। এমনকি অ্যাম্বুলেন্সে রোগী মারা যাচ্ছে। অথচ সরকার করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা ও টেস্টের জন্য কয়েকটি হাসপাতাল নির্দিষ্ট করে দিয়েছে।

তিনি বলেন, বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে দায়িত্বরত চিকিৎসক, নার্সসহ সংশ্লিষ্টদের নিরাপত্তার বিষয়টি ভাবতে হবে। একারণে বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকগুলোর প্রবেশ পথে স্থাপিত হলুদ জোনে দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও অন্যদের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় পিপিই, গ্লোভস, মাস্ক ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ নিশ্চিত করা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৮ এর ৬ ধারা অনুসারে গঠিত উপদেষ্টা কমিটি দেশে করোনা প্রতিরোধে কি কি কার্যক্রম গ্রহB বা সুপারিশ করেছে তার একটি প্রতিবেদন আদালতের সামনে আসা উচিত।

রিট আবেদনের বিরোধিতা করে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, সরকারকে বিব্রত করার জন্য এই মামলা করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরণের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। শুনানি শেষে আদালত আদেশ দেন।

মনজিল মোরসেদ বলেন, জনস্বার্থে করা এ রিট আবেদনটির শুনানি নিয়ে আদালত দুটি নির্দেশনা দিয়েছেন এবং আবেদনটি হাই কোর্টের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়েছেন। বেসরকারি হাসপাতালের প্রবেশ মুখে ‘হলুদ জোন’ স্থাপন করে প্রত্যেক রোগীকে জরুরি চিকিৎসা দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে গত ১৪ মে ভার্চুয়াল আদালতে রিট আবেদনটি করা হয়।

মানবাধিকার ও পরিবেশবাদি সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে মনজিল মোরসেদ নিজেই আবেদনটি করেন।

এতে বিবাদি করা হয় সংক্রমণ ব্যধি প্রতিরোধে করা কমিটির উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারম্যান, স্বাস্থ্য সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, অতিরিক্ত স্বাস্থ্য সচিব (হাসপাতাল) ও বাংলাদেশ বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়গনস্টিক মালিক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

করোনা,হাইকোর্ট,সুপ্রিম কোর্ট
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close