Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
  • ||

তদন্ত শেষ, ৮ জনকে অভিযুক্ত করে জুলহাস-তনয় হত্যা মামলার চার্জশিট চূড়ান্ত

প্রকাশ:  ১২ মে ২০১৯, ১৯:২৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট icon
ফাইল ছবি

রাজধানীর কলাবাগানে ইউএসএইড কর্মকর্তা জুলহাস মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব তনয় হত্যাকাণ্ডের মামলায় তদন্ত শেষ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেরোজিম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি )।

এ ঘটনায় ৮ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট চূড়ান্ত করা হয়েছে। আদালতে দাখিল করতে চার্জশিটটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।

রোববার (১২ মে) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করে ডিএমপির গণমাধ্যম শাখার প্রধান মাসুদুর রহমান বলেন, তদন্তে ঘটনার সবকিছু উঠে এসেছে। কারা, কী কারণে এ কাজ করেছে তাও তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বের করেছেন। মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেলে যেকোনো সময় চার্জশিটটি আদালতে দেওয়া হবে।

গোয়েন্দা পুলিশ জানায়, ঘটনার পর মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন, মো. আরাফাত রহমান ও আসাদুল্লাহকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া পলাতক আরও আসামির নাম উল্লেখ করা হয়। এরা হলো- সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হক ওরফে মেজর জিয়া, আকরাম হোসেন, সাব্বিরুল হক চৌধুরী ও মো. জুনাইদ আহমদ ওরফে মাওলানা জুনেদ আহম্মদ ওরফে জুনায়েদ। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সরাসরি জড়িত ১৩ জনের নাম পাওয়া যায়। ৫ জনের শুধু সাংগঠনিক নাম জানা যায়। পূর্ণাঙ্গ নাম-ঠিকানা সংগ্রহ করা সম্ভব না হওয়ায় ৮ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র প্রস্তুত করা হয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেফতার করে পরবর্তীতে সম্পূরক চার্জশিট দাখিল করা হবে। আর গ্রেফতারকৃত ৪ জন আদালতে ঘটনার সংশ্লিষ্টতা স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামিরা নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের বিভিন্ন পর্যায়ের সক্রিয় সদস্য। সংগঠনের নেতা সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হক ওরফে মেজর জিয়ার নির্দেশে সংগঠনের সামরিক শাখার সদস্যরা এ হত্যাকাণ্ড ঘটায়। নিজেদের জানান দেওয়ার জন্য তারা এ কাজ করেছে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ২৫ এপ্রিল জুলহাস মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব রাব্বী তনয়কে সন্ত্রাসীরা নৃসংশভাবে হত্যা করে। প্রথমে মামলাটি ডিবি তদন্ত করলেও পরবর্তীতে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট তদন্ত করে।


পিপিবিডি/এসএম

জুলহাস-তনয়,আদালত
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত