• সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
  • ||

‘আমরা যদি কাজ বন্ধ করে দেই সরকার ঠেইল্লাও কাজ করাইতে পারবে না’

প্রকাশ:  ০৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:৩৪
ক্যাম্পাস প্রতিনিধি
প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান

সিসি টিভি ক্রয়, সংরক্ষণ এবং আসবাবপত্র ক্রয় সংক্রান্ত তথ্য চেয়ে তথ্য অধিকার বিধিমালায় তথ্য জানতে চেয়ে আবেদন করায় সংবাদকর্মীর উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা, উন্নয়ন ও ওয়ার্কস দপ্তর পরিচালক প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান।

বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিক মূল্যে পছন্দের প্রতিষ্ঠান দিয়ে আসবাবপত্র ক্রয়, সিসি টিভি ক্যামেরা ক্রয়সহ বিভিন্ন অর্থনৈতিক কেলেংকারির অভিযোগের প্রেক্ষিতে বুধবার (৬ নভেম্বর) এক গণমাধ্যমকর্মী তথ্য চেয়ে রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত)কৃষিবিদ ড. হুমায়ুন কবীর বরাবর চিঠি প্রেরণ করলে সেটি পরিকল্পনা, উন্নয়ন ও ওয়ার্কস দপ্তর পরিচালক প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান এর কাছে জমা দেয়ার জন্যে বলেন রেজিস্ট্রার(ভারপ্রাপ্ত)।

চিঠি জমা দেয়ার পর ক্ষিপ্ত হয়ে প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান বলেন, তথ্য অধিকারে সব তথ্য দিতে হবে? সাংবাদিকরা এই সব তথ্য নিয়ে আমাদের পিছনে লাগোক। আমরা আমাদের কাজ ফেলে তথ্য দিতে থাকি। এই সব তথ্য দিয়ে সাংবাদিকের কি কাজ? সব তথ্য চাইতে হবে? কয়টা ইট লেগেছে, কয়টা রড সব হিসাব জানতে চান তাহলে। এই সব তথ্য তোমাদের কেন দরকার? তথ্য অধিকারে সব তথ্য দিতে হবে? আমরা যদি কাজ বন্ধ করে দেই সরকার ঠেইল্লাও কাজ করাইতে পারবে না। আমরা সেলফ মোটিভেইটেড হয়ে কাজ করি।

এই বিষয়ে রেজিস্ট্রার(ভারপ্রাপ্ত) কৃষিবিদ ড. হুমায়ুন কবীর বলেন, তথ্য অধিকারে তথ্য জানতে চাওয়া যেতেই পারে এতে কারও ক্ষিপ্ত হওয়ার কিছু নেই। তথ্য না থাকলে সেটি বলতে পারতেন তিনি কিন্তু ক্ষিপ্ত হয়ে থাকলে সেটি ঠিক নয়।

এ বিষয়ে জাককানইবি প্রেসক্লাব সভাপতি সরকার আবদুল্লাহ তুহিন বলেন, প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান কাছে সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে সংবাদকর্মীদেরকে প্রায়ই ক্ষোভের মুখে পড়তে হয়, সংবাদকর্মীদের সাথে উনার এই আচরণ অত্যন্ত নিন্দনীয় ও গ্রহণযোগ্য নয়।

প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান ও তার দপ্তর পরিকল্পনা নিয়ে বিভিন্ন সময় শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পরে বারবার পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনতে হয়েছে। লিফট কিনতে সুইজারল্যান্ড ও স্পেনে ৯ জনের বিদেশ ভ্রমণ ভাবনাও আসে এই দপ্তর থেকে। দশতলা ছাত্রীহল নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারসহ উপাচার্য বাংলো ও শিক্ষকদের ডরমেটরি ঘেঁষে নির্মাণ করা হচ্ছে ছাত্রীদের জন্যে হল। নারী শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শিক্ষক, কর্মকর্তাও ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন। এছাড়া পরিকল্পনায় থাকা ভবনের নকশার বাইরে গিয়েও অতিরিক্ত ব্যয় দেখিয়ে কাজ পরিচালনা করছে এই দপ্তর প্রধান। অভিযোগ রয়েছে প্রকৌশল দপ্তরের সংশ্লিষ্টতাও রয়েছে এই অনিয়মে।

তথ্য অধিকার বিধিমালার নিয়ম অনুযায়ী এক দপ্তরের সংশ্লিষ্ট বিষয় সম্পর্কে তথ্য দিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ২০ কর্মদিবস সময় পাবে এবং সেই অনুরোধে যদি একাধিক দপ্তরের সংশ্লিষ্টতা থাকে তবে অনধিক ৩০ কর্মদিবসের মধ্যে আবেদনকারীকে তথ্য প্রেরণ করতে হবে।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ইমি

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়,প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত