Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬
  • ||

‘ডিসেম্বরেই হলে উঠতে পারবে শিক্ষার্থীরা’ 

প্রকাশ:  ২৮ জুলাই ২০১৯, ২০:১৩
জাককানইবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে রীনা মঞ্জিলসহ কয়েকটি মেসে থাকা ছাত্র ছাত্রীদের আবাসস্থল ও তাদের খোঁজ নিতে যান উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান।

রোববার (২৮ জুলাই) বিকাল ৫টায় কয়েকটি ছাত্র ছাত্রী মেস ঘুরে দেখেন তিনি। মেসের পরিবেশ নিয়ে শিক্ষার্থী ও মেস মালিকদের সাথে কথা বলেন এ সময় তিনি। দ্রুত সময়ের মধ্যে থাকার জন্যে ভালো পরিবেশ তৈরি করতে মেস মালিকদের বলেন উপাচার্য।

নির্মাণাধীন হলের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে অন্তত ৬তলা পর্যন্ত সম্পূর্ণ করার নির্দেশ দিয়েছি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে।

সারাদেশে ডেঙ্গু জ্বরের প্রভাব এর কথা চিন্তা করে বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশেপাশের মেসগুলোতেও মশা নিধন করার জন্যে নির্দেশ দিয়েছি।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মোঃ নজরুল ইসলাম, সহকারী প্রক্টর সাকার মোস্তাফা, আল জাবির ও জনসংযোগ কর্মকর্তা হাফিজুর রহমানসহ প্রমূখ।

উল্লেখ্য গত ২৪জুলাই ভোর রাতে রীনা মঞ্জিল ছাত্রী মেসে এক অজ্ঞাত ব্যক্তিকে অশ্লীল অবস্থায় দেখা যায় সিসিটিভি ফুটেজে। এই নিয়ে বিক্ষোভ এর মুখে পরে বিশ্ববিদ্যালয় ও পুলিশ প্রশাসন। প্রশাসনকে শিক্ষার্থীদের বেধে দেওয়া ৪৮ ঘন্টার আলটিমেটাম এর মধ্যে সন্দেহজনকভাবে শফিকুল ইসলাম নামে একজনকে আটক করে ত্রিশাল থানা পুলিশ। পরবর্তীতে নির্দোষ দাবি করে তাকে নিয়ে আসে স্থানীয় কাউন্সিলর এবং বাছির নামে একজনকে থানায় দিয়ে আসে তারা। তাদের দাবি সিসিটিভি ফুটেজ এর ব্যক্তিই বাসির। তবে বাসির পালিয়ে গেছে বলে জানায় তদন্তে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা মুইত।

পূর্বপশ্চিমবিডি/পিএস

জাককানইবি,শিক্ষার্থী
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত