• শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯
  • ||

রাশিয়ার বাইরে অন্য উৎস থেকে অস্ত্র আমদানির খোঁজ ভারতের 

প্রকাশ:  ১৯ মে ২০২২, ১৭:২৩
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

রাশিয়ার ওপর একাধিক পশ্চিমা দেশ ও জোটের নিষেধাজ্ঞা জারির ফলে দেশটির বাইরে অন্য উৎস থেকে অস্ত্র আমদানির খোঁজ করছে ভারত। দেশটির প্রতিরক্ষা বাহিনীর একটি সূত্র এবং দেশটি সরকারের দুই কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এ কথা জানান।

তারা বলেন, বিশাল সশস্ত্র বাহিনীর জন্য অস্ত্রের চাহিদা মেটাতে বিভিন্ন উৎস থেকে অস্ত্র কেনার চেষ্টা দীর্ঘদিন ধরেই করে আসছিলো নয়াদিল্লি। এমনকি দেশেই অস্ত্র তৈরির পরিকল্পনা করছিলো।

ভারতীয় বিমানবাহিনীর রক্ষণাবেক্ষণ অভিযানের নেতৃত্বে থাকা এয়ার মার্শাল বিভাস পান্ডে বলেন, বর্তমান অশান্ত বিশ্বপরিস্থিতি ও ভূরাজনৈতিক অবস্থা আমাদের একটা শিক্ষা দিয়েছে।

নয়াদিল্লিতে প্রতিরক্ষাসরঞ্জাম প্রস্তুতকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, যদি আমরা নিশ্চয়তা ও স্থিতিশীলতা চাই, তাহলে আমাদের একমাত্র উপায় হলো সম্পূর্ণ আত্মনির্ভরশীল অথবা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে দেশে প্রতিরক্ষাসরঞ্জাম সরবরাহব্যবস্থা তৈরি করা।

তবে এসব কথা বলার সময় ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধের প্রসঙ্গ তোলেননি বিভাস পান্ডে। তিনি বলেন, তিন বছরের মধ্যে ভারতীয় বিমানবাহিনীর যুদ্ধবিমানের টায়ার ও ব্যাটারি মাদ্রাজ রাবার ফ্যাক্টরির (এমআরএফ) মতো দেশিয় প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে নেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে।

দেশে অস্ত্র তৈরি নিয়ে ঊর্ধ্বতন এক সরকারি কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলেছে রয়টার্স। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি বলেন, দেশেই অর্ধেক প্রতিরক্ষাসরঞ্জাম তৈরির লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে সরকার।

প্রতিরক্ষাসরঞ্জাম নিয়ে মস্কোর ওপর ভারতের নির্ভরশীলতা ও এর ওপর ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব নিয়ে জানতে ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করে অবশ্য কোনো সাড়া পায়নি রয়টার্স।

নয়াদিল্লিভিত্তিক সেন্টার ফর পলিসি রিসার্চের স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ বিষয়ের অধ্যাপক ও প্রতিরক্ষা বিশ্লেষক ব্রহ্ম চেলানি বলেন, অতীতে রাশিয়ার প্রতিরক্ষাসরঞ্জামের ওপর ভারত নির্ভরশীল হলেও সাম্প্রতিক বছরগুলোয় যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স ও ইসরায়েলের মতো দেশ থেকে আমদানি বেড়েছে।

তিনি বলেন, প্রতিরক্ষা ইস্যুতে এই স্থানান্তর ধীরগতিতে করতে হয়। রাতারাতি সরবরাহকারী বদল হওয়া সম্ভব নয়।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএম

ভারত,খোঁজ,আমদানি,অস্ত্র,রাশিয়া
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close