• মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯
  • ||

রুশ সীমান্তে ন্যাটো জোটের সামরিক মহড়া শুরু

প্রকাশ:  ১৭ মে ২০২২, ১৬:৩৭
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো সামরিক জোট রাশিয়া সীমান্তের কাছে মহড়া শুরু হয়েছে। এস্তোনিয়ার ভূখণ্ডে শুরু হওয়া এই মহড়ায় যুক্তরাষ্ট্র, ফিনল্যান্ড, সুইডেন, জর্জিয়া এবং ইউক্রেনসহ ১৪টি দেশ অংশ নিচ্ছে।

সোমবার শুরু হওয়া এই সামরিক মহড়াকে বলা হচ্ছে বাল্টিক দেশগুলোর ইতিহাসে এটি অন্যতম বৃহত্তম মহড়া। ‘হেজহগ’ নামের এ মহড়ায় ন্যাটো জোটের সদস্য এবং তাদের মিত্র ১৪ দেশের ১৫ হাজার সেনা অংশ নিচ্ছে।

ফিনল্যান্ডের গণমাধ্যম জানিয়েছে, চলতি মহড়ায় সামরিক বাহিনীর সব শাখা অংশ নেবে এবং স্থল, সমুদ্র ও আকাশে মহড়া চালানো হবে। পাশাপাশি সাইবার যুদ্ধের মহড়াও চলবে।

রুশ সীমান্ত থেকে মাত্র ৬০ কিলোমিটার দূরে এ মহড়া চলছে। তবে মহড়ার কমান্ডার ও এস্তোনিয়ার প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপপ্রধান মেজর জেনারেল ভিকো-ভেলো বলেন, ইউক্রেনে রাশিয়ার চলমান সামরিক অভিযানের সঙ্গে এই মহড়ার কোনো সম্পর্ক নেই।

ফিনল্যান্ড ও সুইডেন ন্যাটো জোটে যোগ দেয়ার বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেয়ার একদিন পর এই মহড়া শুরু হলো।

ওদিকে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, ফিনল্যান্ড ও সুইডেন ন্যাটো জোটে যোগ দিলে তার দেশের নিরাপত্তা সরাসরি হুমকিগ্রস্ত হবে না। কিন্তু মার্কিন নেতৃত্বাধীন এই সামরিক জোট যদি ওই দুই দেশে সামরিক অবকাঠামো শক্তিশালী করতে চায় তাহলে মস্কো তার জবাব দেবে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট সোমবার ক্রেমলিনে সাবেক সোভিয়েত প্রজাতন্ত্রগুলির এক সামরিক জোটের নেতাদের বৈঠকে বক্তব্য রাখার সময় বলেন, ‘এসব দেশের ন্যাটোতে যোগ দেয়ার ঘটনায় রাশিয়ার কোনো সমস্যা নেই। তবে যদি এসব দেশে সামরিক অবকাঠামো শক্তিশালী করার চেষ্টা করা হয় তাহলে আমরা অবশ্যই তার জবাব দেব’।

বেলারুশ, আর্মেনিয়া, কাজাখস্তান, কিরঘিজিস্তান ও তাজিকিস্তানকে নিয়ে গঠিত কালেক্টিভ সিকিউরিটি ট্রিটি অর্গানাইজেশন বা সিএসটিও’র নেতাদের সমাবেশে পুতিন আরো বলেন, ‘আমাদের জবাব কি হবে সেটা নির্ভর করবে আমাদের জন্য কতখানি হুমকি সৃষ্টি করা হবে তার ওপর’।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, যুক্তরাষ্ট্র অত্যন্ত ‘আগ্রাসী’ মনোভাব নিয়ে ন্যাটো জোটকে পূর্বদিকে সম্প্রসারণে পথ বেছে নিয়েছে যা বিশ্বের কঠিন নিরাপত্তা পরিস্থিতিকে আরো নাজুক করে তুলেছে।

ফিনল্যান্ড সব রাখঢাক তুলে দিয়ে রবিবার ন্যাটো জোটে যোগ দেয়ার আকাঙ্ক্ষার কথা আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছে। এর পরপরই সুইডেনও একই আগ্রহ প্রকাশ করেছে। রাশিয়া দীর্ঘদিন ধরে পূর্বদিকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন এই সামরিক জোটের সম্প্রসারণের বিরোধিতা করে আসছে।

পূর্বপশ্চিম- এনই

রুশ সীমান্ত,ন্যাটো জোট
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close