• বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮
  • ||

ফেসবুকের বিরুদ্ধে ১৫ হাজার কোটি ডলারের মামলা

প্রকাশ:  ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:২৮
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক কর্তৃপক্ষের (মেটা) বিরুদ্ধে প্রায় ১৫ হাজার কোটি ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলা করেছে রোহিঙ্গারা। সোমবার (৭ ডিসেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে রোহিঙ্গাদের পক্ষের আইনজীবীরা মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় ফেসবুক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গণহত্যায় সম্পৃক্ততার অভিযোগ আনা হয়। আন্তর্জাতিক বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, যুক্তরাজ্য এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বহু সংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থী ফেসবুকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মামলায় বলা হয়েছে, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে ঘৃণামূলক বক্তব্য ছড়ানোর অনুমতি দিয়েছে ফেসবুক। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটি নির্যাতিত সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে সহিংসতা প্রচার করেছে। এর ক্ষতিপূরণ হিসেবে তারা ১৫ হাজার কোটি ডলার দাবি করছে।

বিবিসির প্রতিবেদন মতে, ২০১৭ সালে বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারে সামরিক দমন অভিযানের সময় আনুমানিক ১০ হাজার রোহিঙ্গা মুসলমানকে হত্যা করা হয়েছিল। তখনকার বিভিন্ন ছবি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, ফেসবুক অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হতে উসকানিমূলক ভিডিও, সহিংসতা এবং অপপ্রচারের ভিডিও ও তথ্য সংবলিত পেজগুলোকে ব্যবহারকারীদের দেখতে উৎসাহিত করেছে। এতে ঘৃণ্য অপপ্রচার আরও বেড়েছে এবং তা গণহত্যায় উসকানি হিসেবে কাজ করেছে।

এদিকে সেনাবাহিনীর অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত ও গৃহবন্দি মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চিকে চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। সোমবার (৬ ডিসেম্বর) জান্তাশাসিত দেশটির একটি আদালত এই রায় ঘোষণা করেন। কার্যত সরকারের শীর্ষ পদ থেকে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার ১১ মাসের মাথায় তার বিরুদ্ধে দেওয়া প্রথম কোনো রায়ে এই কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হলো।

সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে উসকানি দিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি এবং কোভিড-১৯ প্রোটোকল লঙ্ঘনের মাধ্যমে জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন ভাঙার দায়ে সু চিকে এই কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মিয়ানমারের আইন অনুযায়ী এই অভিযোগে অভিযুক্ত কোনো ব্যক্তিকে যথাক্রমে সর্বোচ্চ দুই ও তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়ার বিধান রয়েছে।


পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএস

ফেসবুক,কোটি ডলারের মামলা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close