• শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮
  • ||
শিরোনাম

ফরাসী প্রেসিডেন্টকে চড় মারা যুবকটি কে

প্রকাশ:  ১০ জুন ২০২১, ২১:২৭ | আপডেট : ১০ জুন ২০২১, ২১:২৮
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

দক্ষিণপূর্ব ফ্রান্সে আনুষ্ঠানিক সফরকালে জনগণের সঙ্গে আলাপ ও সৌহার্দ্য বিনিময় করতে গিয়ে গত মঙ্গলবার চড় খেয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁ! সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা যায়, নিরাপত্তা বেষ্টনীর ওপাশে উপস্থিত জনতার দিকে তিনি হেঁটে গেলে জনতার মধ্য থেকে এক যুবক মাখোঁকে সজোরে চড় মারেন।

সাথে সাথেই প্রেসিডেন্টকে তার দেহরক্ষীরা সরিয়ে নেন এবং সে যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়।

সম্পর্কিত খবর

    বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদন এবং সংশ্লিষ্ট তদন্তে জানা গেছে, প্রেসিডেন্টের গালে চড় মারা এই যুবক বেশকিছু ডানঘেঁষা ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে রেখেছেন। তাছাড়া সে 'মধ্যযুগীয় তলোয়ার দর্শন' এর অনুসারী।

    ফরাসি পুলিশ জানায়, এ যুবকের নাম ড্যামিয়েন ট্যারেল (২৮)। তবে তার কোন পূর্ব অপরাধের রেকর্ড নেই।

    প্রেসিডেন্টকে চড় মারার সময় খাকিরঙা টিশার্ট পরিহিত ড্যামিয়েন 'মাখোঁবাদ নিপাত যাক' বলে স্লোগান দিচ্ছিলেন। তাছাড়া, সেসময় ফরাসী রাজতন্ত্রকালের রণ-হুঙ্কার 'মুঁজুঁয়া সান ডেনি' উচ্চারণ করেন তিনি। প্রাচীন যুগের ফরাসী রাজা শার্লামেনের রণ-ধ্বজায় এ স্লোগানটি থাকতো।

    বুধবার পুলিশি হেফাজতেই ছিলেন ড্যামিয়েন। একজন 'পাবলিক ফিগার'কে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ আনা হয়েছে তার বিরুদ্ধে, যার শাস্তিস্বরূপ সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড এবং ৪৫ হাজার ইউরো আর্থিক জরিমানা হতে পারে।

    তদন্তের সাথে সংশ্লিষ্ট এক সূত্র জানায়, ড্যামিয়েন ট্যারেল কিছুটা খেয়ালী প্রকৃতির এবং তিনি সামাজিকতা এড়িয়ে চলতে পছন্দ করেন। গেম খেলতেও পছন্দ তার খুব। মার্শাল আর্টে উৎসাহ রয়েছে এমন কয়েকজনকে সাথে নিয়ে সে স্থানীয় একটি ক্লাবে ঐতিহাসিক ইউরোপীয়ান মার্শাল আর্টের চর্চা করে থাকেন, সেখানে মূলত তারা ঐতিহ্যবাহী তলোয়ার, বর্ম ইত্যাদি নিয়ে বিভিন্ন কৌশল অনুশীলন করে থাকেন।

    সেদিন এ ঘটনার কিছুক্ষণ পরেই মাখোঁ আবারও ব্যারিকেডের দিকে আসেন এবং মানুষের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

    ফরাসী গণমাধ্যমের কাছে তিনি একে 'বিচ্ছিন্ন ঘটনা' এবং 'বোকামি' হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

    "আপনার কোন কথা বা কাজেই সহিংসতা বা ঘৃণার প্রকাশ থাকতে পারে না। নতুবা, এটি খোদ গণতন্ত্রের জন্য হুমকিস্বরূপ", বলেন ইমানুয়েল মাখোঁ।

    প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁ

    তাছাড়া এ ধরনের হামলা এবারই প্রথম নয়। ফরাসী প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁ এর আগেও জনতার হামলার শিকার হয়েছেন। ২০১৬ সালে, অর্থমন্ত্রী থাকা অবস্থায় শ্রমনীতি সংস্কারের কারণে বামপন্থী ট্রেড ইউনিয়নবাদীরা তার গায়ে ডিম ছুঁড়ে মেরেছিলেন।

    বুধবার সরকারের মুখপাত্র গ্যাব্রিয়েল আটাল জানান যে, নিরাপত্তা নিয়ে ঝুঁকি থাকার পরেও ফরাসী প্রেসিডেন্ট সব সময়ই তার ভ্রমণের সময় জনগণের সাথে এভাবেই সৌহার্দ্য বিনিময় করে যাবেন।

    তিনি বলেন, "স্পষ্টতই তার এসব সফর অব্যাহত থাকবে: প্রেসিডেন্ট ফরাসী জনসাধারণের সাথে সব সময় যোগাযোগ রাখবেন। একজন বিচ্ছিন্ন ব্যক্তি যিনি প্রেসিডেন্টকে চ্যালেঞ্জ জানাতে চেয়েছিলেন, তার জন্য প্রেসিডেন্টের সাহচর্য থেকে জনতাকে বঞ্চিত করবার কোন অর্থ নেই"।

    সূত্র: আল জাজিরা

    পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

    মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close