• শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ৯ মাঘ ১৪২৭
  • ||

‘ফাকিং’ এবার ‘ফাগিং’ হবে

প্রকাশ:  ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১৭:৪৫
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

হাজার বছরের পুরনো নাম বদলে ফেলেছে অস্ট্রিয়ার গ্রাম ফাকিং। জার্মানির সীমান্তে অবস্থিত ছোট্ট এই গ্রামে লোকসংখ্যা শখানেক। দীর্ঘদিন ধরেই এই গ্রামের নাম ফাকিং। ইন্টারনেট আসার আগে পর্যন্ত গ্রামের নাম নিয়ে কোনো সমস্যাও ছিল না। কিন্তু ইন্টারনেট আসতেই শুরু হলো সমস্যা। বাড়লো পর্যটকদের উৎপাত। অন্য কোনো কারণে নয়, সকলেই গ্রামের নাম লেখা সাইনবোর্ডের সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তোলেন। কেউ কেউ খুলে নিয়ে যান গ্রামের নাম। ফলে শেষ পর্যন্ত গ্রামের মানুষ নাম বদলানোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হন। প্রশাসনকে জানানো হয়, আগামী ১ জানুয়ারি থেকে নাম বদলে হচ্ছে ফাগিং।

জার্মান ভাষায় ফাকিং শব্দের কোনো অর্থ নেই। উচ্চারণ ফাগিং। এত দিন এই নাম নিয়ে যে বিপত্তি হতে পারে, তা বুঝতেই পারেননি গ্রামের মানুষ। বস্তুত এই গ্রামের অদূরেই রয়েছে আরো দুইটি গ্রাম-- কিসিং এবং ওয়েডিং। বহু পর্যটকই জার্মানির মিউনিখ থেকে সালজবুর্গের রাস্তায় এই গ্রামগুলিতে নেমে ছবি তোলেন। সাইনবোর্ড তুলে নেন সংগ্রহে রাখার জন্য। ইন্টারনেটে নামের জন্য ভাইরাল হয়ে গিয়েছে এলাকাটি। ফলে সাধারণ মানুষের সমস্যা বেড়েছে।

ফাকিং শব্দের অর্থ জানার পরে গ্রামের মানুষেরও বিপত্তি বেড়েছে। কোনো কোনো ব্যক্তি ফাকিং সাইনবোর্ডের গায়ে লিখে দিয়েছেন ‘আমাদের আবহাওয়া ফাকিং গুরুত্বপূর্ণ’। গ্রামের মানুষ চাইছিলেন না, এই বিপত্তি চলুক। সে কারণেই তাঁরা নাম বদলের সিদ্ধান্ত নেন।

ফাকিং নাম বদলানোর সিদ্ধান্ত নিলেও একই ধরনের আরো বেশ কয়েকটি জনপদ এখনো পুরনো নাম বদলের কথা ভাবেনি। তেমনই দুইটি গ্রামের নাম ওবারফাকিং, উনটারফাকিং। জার্মান সীমান্তে পাহাড়ের কোলে এই দুইটি গ্রামও কি ফাকিংয়ের পথ অনুসরণ করবে? সূত্র: ডয়েচে ভেলে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/ এনএন

ফাগিং,ফাকিং
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
cdbl
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close