• সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭
  • ||

হিউম্যান ট্রায়ালে অস্ট্রেলিয়ার করোনা টিকা

প্রকাশ:  ১৩ জুলাই ২০২০, ১৪:৫৩
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডে করোনাভাইরাসের আরও একটি সম্ভাব্য টিকার হিউম্যান ট্রায়াল শুরু হয়েছে। ব্রিসবেনে ১২০ জন স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে এর প্রথম ডোজ প্রয়োগ করা হবে। টিকাটি তৈরি করেছেন ইউনিভার্সিটি অব কুইন্সল্যান্ডের গবেষকরা। সোমবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার এবিসি নিউজ।

ট্রায়ালের অংশ হিসেবে প্রতি চার সপ্তাহ পর ইনজেকশনের মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবীদের শরীরে দুই ডোজ করে টিকা দেওয়া হবে। গবেষকরা এ নিয়ে পর্যালোচনা করবেন এবং স্বেচ্ছাসেবীদের এক বছর পর্যন্ত পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। তবে আগামী সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ ট্রায়ালের প্রাথমিক ফল মিলবে বলে আশা করা হচ্ছে।

টিকাটির এই হিউম্যান ট্রায়ালকে কুইন্সল্যান্ডের জন্য একটি রোমাঞ্চকর দিন হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন রাজ্যটির প্রিমিয়ার আনাস্টেসিয়া প্যালাস্কজুক। টিকাটি দ্রুত উদ্ভাবনে ইতোমধ্যেই এ সংক্রান্ত গবেষণার পেছনে ১০ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করেছে কুইন্সল্যান্ডের কর্তৃপক্ষ।

অস্ট্রেলিয়ায় আরও একাধিক করোনা টিকা নিয়ে কাজ করছেন গবেষকরা। এর মধ্যে ইউনিভার্সিটি অব কুইন্সল্যান্ডের গবেষক ও স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়েই আরও একটি টিকা উন্নয়নের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে তৃতীয় ধাপের ট্রায়ালে যাচ্ছে চীনা প্রতিষ্ঠান ক্যানসিনো বায়োলজিকস-এর করোনাভাইরাসের টিকা। এ ব্যাপারে রাশিয়া, ব্রাজিল, চিলি ও সৌদি আরবের মতো দেশগুলোর সঙ্গে আলোচনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। ক্যানসিনো বায়োলজিকস-এর সহপ্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক কিউ দংজু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কিউ দংজু বলেন, আমরা তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষার জন্য রাশিয়া, ব্রাজিল, চিলি ও সৌদি আরবের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। এটি এখনও আলোচনার পর্যায়ে রয়েছে। শনিবার চীনের পূর্বাঞ্চলীয় জিয়াংসু প্রদেশে এন্টি ভাইরাল ড্রাগ ডেভেলপমেন্ট বিষয়ক এক সম্মেলনে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

গত মার্চে চীনের এ ভ্যাকসিনটির প্রথম ধাপের ট্রায়াল সম্পন্ন হয়। ইতোমধ্যেই ক্যানসিনো-র এ ভ্যাকসিন সেনাসদস্যদের ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে চীনের সামরিক বাহিনী।

বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশ ও কোম্পানি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের টিকা উদ্ভাবনের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। চীনের উহানে প্রথম ছড়ানো ভাইরাসটিতে বিশ্বের এক কোটি ২৮ লাখেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত ও পাঁচ লাখ ৬৭ হাজারেও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বীকৃত ১৭টি ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেটের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি চীনা কোম্পানি বা ইনস্টিটিউটের।

বিশ্বজুড়ে শতাধিক ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেন্ট প্রাক-ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে রয়েছে। তবে ট্রায়ালের বিভিন্ন ধাপে থাকা কোনও ভ্যাকসিনই এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে বাণিজ্যিক ব্যবহারের অনুমোদন পায়নি।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জেআর

টিকা
  • আরও পড়তে ক্লিক করুন:
  • টিকা
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close