• রোববার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭
  • ||

চাচির সঙ্গে ভাতিজার প্রেম, বিয়ের পরই হলো যে পরিণতি

প্রকাশ:  ১০ জুলাই ২০২০, ২২:১১
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চাচির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ৩২ বছর বয়সী গৌতমের। এক সময় বিষয়টি জানাজানি হলে পরিবারে শুরু হয় অশান্তি। এরই জেরে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়িতে চলে আসেন মমতা দাস নামের সেই চাচি। অবশেষে এই পরকীয়ার জেরে গত মঙ্গলবার চাচিকে সিঁদুর পরিয়ে বিয়েও করেন গৌতম। কিন্তু তারপরই আত্মহত্যা করেন এই যুগল। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পশ্চিম মেদিনীপুরে ঘটেছে এ ঘটনা।

ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়েছে, কয়েক বছর আগে পশ্চিম মেদিনীপুরের মালবাঁধি জঙ্গল সংলগ্ন গড়বেড়িয়ার বাসিন্দা মমতা দাসের আনন্দপুরে বিয়ে হয়। বিয়ের পর সন্তান জন্মও দেন তিনি। সুখেই চলছিল তার সংসার। কিন্তু এরই মাঝেই মমতা তার স্বামীর ভাতিজার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে যান। ভাতিজার সঙ্গে এ প্রেম জানাজানি হতেই সংসারে শুরু হয় অশান্তি। তাদের নিয়ে কথা ওঠে সমাজেও।

পারিবারিক অশান্তির জেরে বাবার বাড়িতে চলে যান মমতা। গত মঙ্গলবারও সেখানেই ছিলেন তিনি। আর আনন্দপুর থেকে গৌতম দাসও চলে যান প্রেমিকা তথা চাচির সঙ্গে দেখা করতে। দুজনে একটি সাইকেলে ঘোরাঘুরির পর ঢুকে যান মালবাঁধির জঙ্গলে। সেখানেই চাচিকে সিদুঁর পরিয়ে বিয়ে করেন গৌতম। এরপরই গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তারা। পরে স্থানীয়রা বিষয়টি দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ লাশ দুটি উদ্ধার করে।

জানা গেছে, লাশের কাছ থেকে একাধিক প্রেমপত্র এবং কিছু টাকা পাওয়া গেছে। পুলিশের ধারণা, আত্মহত্যা করার উদ্দেশ্যেই তারা নতুন দড়ি নিয়ে জঙ্গলে ঢুকেছিলেন।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

ভারত
  • আরও পড়তে ক্লিক করুন:
  • ভারত
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close