• রোববার, ১২ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭
  • ||
শিরোনাম

চিনে রাখুন, করোনা আর সাধারণ ফ্লুর লক্ষ্মণ

প্রকাশ:  ০৩ জুন ২০২০, ০২:৪৫
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতায় বিশ্ববাসী এখন সীমাহীন আতঙ্কে দিন অতিবাহিত করছেন। প্রতিটি মুহূর্তে নতুন আক্রান্ত আর লাশের সারি যেন দীর্ঘ হয়ে যাচ্ছে। ‘লকডাউন, আইসোলেশন ও সেলফ কোয়ারেন্টিনে সম্পূর্ণরূপে স্তব্ধ হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। ঠাণ্ডা, সর্দি-কাশি, জ্বর, শ্বাসকষ্ট, শরীর ব্যথা, মাথা যন্ত্রণা- সাধারণ সময়ে এসব উপসর্গকে ভাইরাল ফ্লু মনে হলেও করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) আতঙ্কের কারণে অনেকেই এখন ভয় পাচ্ছেন। এসব উপসর্গ দেখা দিলেই প্রাণঘাতী করোনার থাবা বসালো কি-না তা নিয়ে শুরু হচ্ছে নতুন চিন্তা।

কীভাবে বুঝবেন কোনটা করোনা, ফ্লু, ঠাণ্ডা লাগা আর কোনটি অ্যালার্জিজনিত সমস্যা? এর জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) কিছু নির্দেশিকা রয়েছে। লক্ষণ দেখে বুঝে নিতে পারবেন- আপনি করোনায় নাকি সাধারণ ফ্লু জাতীয় কোনো রোগে আক্রান্ত।

আপনি যদি করোনায় আক্রান্ত হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার বেশ কয়েটি লক্ষণ দেখা দিতে পারে। এর মধ্যে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দিতে পারে। এসব লক্ষণের পাশাপাশি মাঝে মধ্যে শরীর ব্যথা, মাথা ব্যথা, ক্লান্তিবোধ ও গলা ব্যথা হতে পারে। তবে হালকা ডায়রিয়াও হতে পারে। কোনো কোনো সময় নাক দিয়ে পানিও পড়তে পারে। তবে খুব কম। কিন্তু কখনো চোখ দিয়ে পানি পড়ে না। আর ওইসব উপসর্গ হলেই করোনার চিন্তা করবেন না। কারণ এগুলো হলো সাধারণ ফ্লুর লক্ষণ। তবে এসব লক্ষণের পাশাপাশি ডায়রিয়া, গলা ব্যথা ও নাক দিয়ে পানি পড়তে পারে। কিন্তু হাঁচি, চোখ দিয়ে পানি পড়া ও শ্বাসকষ্ট হয় না।

হঠাৎ করেই ঠাণ্ডা বা বেশি গরম পড়লে ফ্লু হতে পারে। এসময় হালকা কাশি থাকতে পারে। সেই সঙ্গে শরীর ব্যথা, গলা ব্যথা, নাক দিয়ে পানি পড়া ও হাঁচি আসতে পারে এবং সঙ্গে হালকা জ্বরও আসতে পারে। তবে খুব কম। কিন্তু ডায়রিয়া, শ্বাসকষ্ট ও চোখ দিয়ে পানি পড়ে না।

অ্যালার্জি হলেও বেশ কয়েকটি লক্ষণ দেখা দিতে পারে। তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি যেটা হয় সেটা হলো নাক দিয়ে পানি পড়া, হাঁচি ও চোখ দিয়ে পানি পড়া। এর সঙ্গে প্রায়ই কাশি, জ্বর, শ্বাসকষ্ট, মাথা ব্যথা হতে পারে এবং ক্লান্তিও লাগতে পারে। তবে শরীর ব্যথা, গলা ব্যথা ও ডায়রিয়া হয় না।

প্রসঙ্গত, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা আজ মঙ্গলবার রাতে বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৭৮ হাজারের বেশি। বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে বিশ্বের ৬৪ লাখ ১২ হাজার ৩৬৪ জন। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৩০ লাখ ৯৬ হাজার ৭৮৩ জন চিকিৎসাধীন এবং ৫৪ হাজার ২০৯ জন (২ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস,বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা,উপসর্গ,শ্বাসকষ্ট
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close