• সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ২২ আষাঢ় ১৪২৭
  • ||

নিউজিল্যান্ডের করোনা জয়

প্রকাশ:  ২৮ মে ২০২০, ১১:১৮
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

করোনা মোকাবিলায় নিউজিল্যান্ড সফল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। এ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে গতকালের দিনটি ছিল নিউজিল্যান্ডের জন্য মাইলফলক। এই প্রথম দেশটির কোনো হাসপাতালে একজনও করোনা রোগী চিকিৎসাধীন নেই। সরকারের তরফে বুধবার সংবাদ সম্মেলন করে এ সুসংবাদ জানানো হয়েছে।

দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালক ডা. অ্যাশলে ব্লুমফির্ড সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, বর্তমানে দেশের কোনো হাসপাতালে আর কোনো করোনা রোগী নেই। সবশেষ সুস্থ হয়ে মিডলমোর হাসপাতাল থেকে একজন রোগী ছাড়া পাওয়ার পর এই সংখ্যাটা এখন শূন্য। বর্তমানে দেশে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২১, তারা বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এনবিসি নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোনো কোভিড-১৯ রোগীর মৃত্যু হয়নি। এছাড়া টানা পঞ্চম দিন করোনায় আক্রান্ত হিসেবে কেউ শনাক্ত হয়নি।

ডা. অ্যাশলে বলেন, ‘বর্তমানে দেশে করোনা রোগীর সংখ্যা ২১, তারা বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।’

এদিকে, টানা প্রায় দুই মাস দেশ লকডাউন থাকার পর গত ১৪ মে থেকে কিছু ব্যবসা কেন্দ্র ও জনসমাগমস্থল খুলে দিতে শুরু করেছে নিউজিল্যান্ড সরকার।

তবে, সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলতে সবাইকে সর্তক করেছেন প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা অ্যার্ডেন। তিনি বলেন, নিউজিল্যান্ড এখন ‌‌‘অ্যালার্ট-২’ স্তরে রয়েছে। রোগ প্রতিরোধ করা গেলেও এখনও সংক্রমণ হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ৫০৪। মারা গেছেন ২১ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৬২ জন।

দেশটিতে যখন মাত্র ছয়জন রোগী শনাক্ত হয়েছিল তখনই অর্থাৎ ১৪ মার্চ প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ড আর্ডার্ন ঘোষণা দেন, নিউজিল্যান্ড ভ্রমণে যারা আসবেন তাদেরকে বাধ্যতামূলক দুই সপ্তাহের সেল্ফ আইসোলেশনে থাকতে হবে।

১৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন অন্য দেশের কোনো পর্যটকের নিউজিল্যান্ডে প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। সেদিন আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২৮ জন। এরপর ২৩ মার্চ দেশজুড়ে সম্পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করেন। অথচ তখনো দেশটিতে করোনায় কেউ মারা যায়নি। আক্রান্ত ছিল মাত্র ১০২ জন।


পূর্বপশ্চিমবিডি/ওআর

নিউজিল্যান্ড,করোনা,করোনাভাইরাস
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close