• মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
  • ||

লকডাউন প্রত্যাহারের পরই চীনের হুবেইয়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ

প্রকাশ:  ২৯ মার্চ ২০২০, ০১:৩৬
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভয়ংকর রূপে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের জন্ম হয়েছিল যে শহরে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের পর চীনের সেই উহান শহর থেকে ‘লকডাউন’ প্রত্যাহার করে জনসাধারণের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে। দীর্ঘ দুই মাসের লকডাউন তুলে নিতে না নিতেই পুলিশের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষ হয়েছে। সীমান্তে তল্লাশি চৌকি বসানোর প্রতিবাদে এ সংঘর্ষে জড়ান হুবেই বাসিন্দারা।

শুক্রবার সকালের দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের সঙ্গে জিয়াংজি প্রদেশের মধ্যে সংযোগকারী একটি সেতু চালু করা হয়। এসময় দুই প্রদেশের স্থানীয়রা ও পুলিশ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সংঘর্ষের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এতে দেখা যায়, হুবেই প্রদেশের বাসিন্দারা পুলিশের সঙ্গে থেমে থেমে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছেন। এ সময় তারা পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করেন ও গাড়ি উল্টে ফেলেন। তারা সীমান্তে তল্লাশি চৌকি বসানোর অভিযোগে জিয়াংজির পুলিশকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানান।

জিয়াংজির বাসিন্দারা দাবি জানান, তাদের প্রদেশে কারা কিসের জন্য প্রবেশ করছেন সে বিষয়টি পরিষ্কার থাকুক।

উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করতে ঘটনাস্থলে পৌঁছান হুবেই প্রদেশের কমিউনিস্ট পার্টির শীর্ষ কর্মকর্তা ম্যা ইয়ানঝুকে। সংঘর্ষ শেষে শুক্রবার বিকেলে তিনি সেতুটি পুনরায় চালু করার নির্দেশ দেন।

দুই প্রদেশের মাঝে সংযোগস্থাপনকারী সেতুটির প্রবেশমুখের তল্লাশি চৌকি প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে। এমনকি উভয় প্রদেশে চলাচলের কোনও ধরনের নথিপত্রও দেখাতে হবে না।

হুবেইয়ের বাসিন্দারা দীর্ঘদিন লকডাউন থেকে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। করোনাভাইরাসের কারণে হুবেইয়ের বাসিন্দারা সাম্প্রদায়িক বৈষম্যের শিকার হতে পারেন এমন শঙ্কা থেকে জিয়াংজির প্রবেশমুখের তল্লাশি চৌকি প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ করেন তারা।

বিবিসি জানায়, মানুষকে উহানে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে, তবে এখন পর্যন্ত উহান শহর এলাকার বাইরে যাতায়াতের অনুমতি কাউকে দেওয়া হয়নি।

চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে এখন পর্যন্ত ৫০ হাজারেরও বেশি লোক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে কমপক্ষে ৩ হাজার জন মারা গেছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

করোনাভাইরাস,লকডাউন’ প্রত্যাহার,চীন,সংঘর্ষ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close