• বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬
  • ||

নারীদের যৌন হয়রানি থেকে বাঁচাবে এই জুতা

প্রকাশ:  ২০ জানুয়ারি ২০২০, ১৬:৩১ | আপডেট : ২০ জানুয়ারি ২০২০, ১৬:৪১
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

যৌন হয়রানি থেকে নারীদের সুরক্ষা দিতে আবিষ্কার হলো অভিনব এক জুতা। নারীদের পায়ে থাকা এই জুতা তাদের ওপর হামলাকারীকে দেবে ইলেকট্রিক শক।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, নারীদের জন্য এই ‘সেফটি সু’ আবিষ্কার করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন ভারতের রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিদ্যা বিভাগের গবেষক বাপ্পা রায়। দেখতে একেবারেই হাল আমলের ফ্যাশন জুতা। সঙ্গে যুক্ত থাকছে নতুন প্রযুক্তি। জুতার মধ্যে থাকবে জিপিএস সিস্টেম যা দিয়ে সহজেই লোকেশন ট্র্যাকিং করা যাবে। পাশাপাশি থাকবে ছয়শ ভোল্টের এসি কারেন্ট।

এই জুতার বৈদ্যুতিক ক্ষমতা দিয়ে অনায়াসে যে কাউকে কুপোকাত করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন বাপ্পা রায়।

ইভটিজিংয়ের সম্মুখীন হলে নারীরা এই সেফটি জুতো ব্যবহার করে আত্মরক্ষা করতে পারবেন। এ ছাড়া সহজেই ভুক্তভোগীর লোকেশন ট্র্যাক করতে পারবে পুলিশ।

বাপ্পা রায় তিনি বলেন, ‘উচ্চমানের ভোল্টেজের সঙ্গে এই জুতার মধ্যে জিপিএস সিস্টেম বসিয়ে খুব সহজে ট্র্যাকিং করার সুযোগ থাকছে। জুতোর অভ্যন্তরীণ সার্কিটে লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির সাড়ে চার ভোল্টকে কমপক্ষে ছয়শ ভোল্টকে এসি ভোল্টেজে রূপান্তর করা হচ্ছে।’

তিনি জানান, সার্কিটটি তৈরি করতে খরচ হয়েছে মাত্র ১৪০ রুপি। সার্কিটের ভেতরে রয়েছে ডায়োড, ট্র‍্যানজিস্টর, ট্র‍্যান্সফরমার, রোধ এসব। সার্কিটটি জুতার ভেতর বসিয়ে সেখান থেকে কিছু ধাতব তার জুতার বাইরের গায়ে লেগে থাকবে। ওই তারগুলোয় থাকবে উচ্চমানের ভোল্টেজ। একটি ফুল চার্জের ব্যাটারি শুরুতেই এক হাজার ভোল্টের ধাক্কা দিতে সক্ষম হবে।

এই গবেষক আরও জানান, ব্যাটারি চার্জিং হবে হাঁটতে হাঁটতেই। জুতার ভেতরে থাকা সুইচটি দরকারের সময় অন করে দিলেই উদ্দেশ্য সফল করা সম্ভব হবে। পাশাপাশি জুতাটিতে ব্যবহার করা হয়েছে এক ধরনের বিশেষ সেন্সর যা রাস্তায় চলার সময় কোনো বাধাবিপত্তি থাকলে সেই জুতা থেকে বিশেষ সিগন্যাল আসতে থাকবে।

বাপ্পা রায়ের নেতৃত্বে গবেষণায় তৈরি এই সেফটি সু এর দামও থাকছে নাগালের মধ্যে। মাত্র সাড়ে তিনশ থেকে চারশ রুপিতেই কেনা যাবে এক জোড়া জুতা।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এএম

জুতা,যৌন হয়রানি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close