• রোববার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬
  • ||

ধর্ষকদের গণপিটুনি দিয়ে মেরে ফেলা উচিত: জয়া বচ্চন

প্রকাশ:  ০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৭:৫৪
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

হায়দরাবাদে ২৭ বছর বয়সী এক নারীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে যখন সমগ্র ভারতজুড়ে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হচ্ছে তখন ধর্ষকদের পিটিয়ে মারার আহ্বান জানিয়েছেন সমাজবাদী পার্টির এমপি জয়া বচ্চন।

সোমবার (২ ডিসেম্বর) রাজ্যসভায় এই আহ্বান জানান সাংসদ জয়া বচ্চন।

জয়া বচ্চন বলেছেন, এই রকম মানুষদের (তেলেঙ্গানায় ধর্ষণে অভিযুক্তরা) প্রকাশ্যে আনা প্রয়োজন এবং তাদেরকে গণপিটুনি দিয়ে মেরে ফেলা উচিত। আমি মনে করি সরকারের কাছে যথাযথ ও সুনির্দিষ্ট উত্তর দাবি করার জন্য জনগণের কাছে এটাই সময়।

গত বুধবার রাতে হায়দরাবাদে পশুচিকিৎসক ওই যুবতীকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় চারজনকে অভিযুক্ত করা হয়। পুলিশ বলেছে, অভিযুক্তরা তাদের পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ওই যুবতীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। তারপর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। এর আগে নয়া দিল্লিতে চলন্ত বাসে একজন মেডিকেল পড়ুয়া ছাত্রীকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করা হয়। সেই ঘটনায় পুরো ভারতজুড়ে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় উঠেছিল।

এ নিয়ে রাজ্যসভায় জয়া বচ্চন বলেন, আমি জানি না এই রকম অপরাধের পর আর কতবার আমাকে দাঁড়াতে হবে, বক্তব্য দিতে হবে। আমি মনে করি নির্ভয়া অথবা কাঠুয়া অথবা তেলেঙ্গানায় যেখানেই হোক এই যে অপরাধ, এর জন্য জনগণ সরকারের কাছ থেকে যথাযথ ও সুনির্দিষ্ট উত্তর চায়।

জয়া বচ্চন প্রশ্ন রাখেন, সরকার কি করেছে? তারা কিভাবে এ পরিস্থিতিকে মোকাবিলা করেছে? ভিকটিমদের জন্য কিভাবে ন্যায়বিচার করা হয়েছে? আমি নাম বলতে চাই না। কিন্তু নিরাপত্তার বিষয়টিকে কি দায়ী করা উচিত হবে না? আমার মনে হচ্ছে, একই ঘটনা একদিন আগে ঘটেছে তেলেঙ্গানায়। কেন এটা বন্ধ হচ্ছে না? তিনি এ সময় জনগণের প্রতি আহ্বান জানান, যেসব মানুষ নারী ও শিশুদের এসব ভয়াবহ অবমাননা থেকে রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছে তাদের নাম প্রকাশ করে লজ্জিত করা উচিত।

এ নিয়ে শুধু জয়া বচ্চন একাই কড়া প্রতিবাদ জানান নি। এ দিন লোকসভা এবং রাজ্যসভায় সরকার ও বিরোধী সব পক্ষের সাংসদরাই ওই ধর্ষণকাণ্ডের তীব্র নিন্দায় সরব হন। ওই ঘটনার নিন্দা জানাতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন এআইএডিএমকে দলের এমপি বিজিলা সত্যনাথ। নিন্দা, ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেক এমপি। ধর্ষকদের মৃত্যুদণ্ড দাবি করা হয়েছে। পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের এমপিরা এই ধর্ষণ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থার আহ্বান জানিয়েছেন।

এর জবাবে লোকসভায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেছেন, এমন হায়েনার মতো অপরাধকে কমিয়ে আনতে প্রতিটি পরামর্শ বা সাজেশনের জন্য উন্মুক্ত কেন্দ্রীয় সরকার। এক্ষেত্রে প্রয়োজন হলে তিনি আইন সংশোধনের কথা বলেন। কঠোর আইন বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে আমরা যেকোনো কিছু করতে আগ্রহী। রাজনাথ সিং ওই পশুচিকিৎসক যুবতী ধর্ষণ ও হত্যার বিষয়ে বলেন, এই অপরাধ পুরো দেশকে লজ্জিত করেছে। সবার জন্যই এটা লজ্জার বিষয়। অভিযুক্তদের অবশ্যই কঠোর শাস্তি দেয়া হবে। এই অপরাধ কতটা ভয়াবহ তা প্রকাশ করার মতো শব্দ আমার কাছে নেই।


পূর্বপশ্চিমবিডি/এস.খান

জয়া বচ্চন
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত