Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬
  • ||

‘হিন্দিকে ভারতের জাতীয় ভাষা ঘোষণার প্রস্তাব’

প্রকাশ:  ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:৪৪
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট icon

ভারত বহু ভাষাভাষীর দেশ উল্লেখ করে বিজেপি সভাপতি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছেন, প্রতিটি ভাষারই নিজস্ব গুরুত্ব থাকলেও বিশ্বব্যাপী পরিচিতির জন্য একটি অভিন্ন ভাষার প্রয়োজন। বর্তমানে যদি এমন একটিও ভাষা থাকে যা জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করার ক্ষমতা রাখে, তবে তা হলো হিন্দি ভাষা। এ ভাষাটি ভারতে সর্বাধিক ব্যবহৃত এবং সহজবোধ্য।

তিনি হিন্দিকে ভারতের জাতীয় ভাষা ঘোষণার প্রস্তাব করেন।

শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর)‘হিন্দি দিবস-২০১৯’ উপলক্ষে টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে তিনি এ প্রস্তাব করেন

জাতীয় ভাষার গুরুত্ব তুলে ধরে অমিত শাহ বলেন, ভারতের জাতীয় পর্যায়ে দু’টি সরকারি ভাষা এবং রাষ্ট্রীয় স্তরে ২২টি তফসিলি ভাষার স্বীকৃত থাকলেও দেশে এখনও কোনো জাতীয় ভাষা নেই। একটি জাতীয় ভাষা যখন দেশপ্রেমিক এবং জাতীয়তাবাদী পরিচয় অর্জনের উদ্দেশে তৈরি করা হয়, তখন সরকারি ভাষা এবং তফসিলি ভাষাগুলো সরকারি পর্যায়ে যোগাযোগের উদ্দেশে বিশুদ্ধভাবে মনোনীত করা হয়।

তিনি বলেন, প্রতি বছর ১৪ সেপ্টেম্বর দিনটি হিন্দি ভাষা দিবস হিসেবে পালিত হয়, যখন ভারতের গণপরিষদ হিন্দিকে ভারতের সরকারি ভাষা হিসেবে গ্রহণ করেছিল, সে দিনের তাৎপর্য তুলে ধরতেই দিনটি পালন করা হয়ে থাকে। দেবনগরী লিপিতে রচিত হিন্দি, দেশের ২২টি তফসিলি ভাষার একটি। সেই সঙ্গে হিন্দি ও ইংরেজি ভাষা দু’টির সরকারি ভাষার মর্যাদাও রয়েছে।

তবে হিন্দিকে ভারতের জাতীয় ভাষার স্বীকৃতি দেওয়ার পথটা বিজেপির জন্য সহজ হবে না। কেননা গত জুনেই নতুন শিক্ষানীতি ২০১৯ এ দেশের সমস্ত স্কুলে হিন্দি বাধ্যতামূলক করার সুপারিশ করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। আর তারপরেই ক্ষোভে ফেটে পড়ে দক্ষিণের রাজ্যগুলো। দেশ জুড়ে তীব্র বিরোধিতার মুখোমুখি হতে হয়েছিল মোদি সরকারকে, বিশেষত দক্ষিণ রাজ্যগুলো থেকে চরম প্রতিবাদ আসে।

প্রবল চাপের মুখে প্রস্তাবিত নতুন শিক্ষানীতির খসড়ায় বড় ধরনের পরিবর্তন করে মোদি সরকার।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএম

বিজেপি সভাপতি,কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,অমিত শাহ,ভারত
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত