Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রোববার, ১৬ জুন ২০১৯, ২ আষাঢ় ১৪২৬
  • ||

‘তামিলদের রক্তে হিন্দি নেই, জোড় করে চাপালে যুদ্ধ শুরু হবে’

প্রকাশ:  ০২ জুন ২০১৯, ১১:২০
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট icon

কেন্দ্রের শিক্ষা নীতি নিয়ে বিজ্ঞানী কে কস্তুরিরঙ্গনের নেতৃত্বে প্যানেল একটি খসড়া প্রস্তাব জমা দেয়৷ সেই প্রস্তাবে বলা হয়, স্কুলে তিনটি ভাষা আবশ্যিক করা হোক৷ ইংরেজি, সংশ্লিষ্ট রাজ্যের আঞ্চলিক ভাষার পাশাপাশি হিন্দিও আবশ্যিক হবে৷ এরপরই গর্জে ওঠে তামিলনাড়ু৷ ডিএমকে সুপ্রিমো এম কে স্ট্যালিন জানিয়ে দেয়, তামিলনাড়ুর স্কুলে হিন্দি ভাষা চাপালে আগুন জ্বলবে৷

তাঁর হুঁশিয়ারি, তামিলনাড়ুতে যদি হিন্দি ভাষা চাপায় কেন্দ্র, তা হলে যুদ্ধ শুরু হবে৷ কারণ, তামিলদের রক্তে হিন্দির কোনও স্থান নেই৷ এই ইস্যুটি সংসদেও তোলা হবে জানিয়েছেন ডিএমকে৷

শনিবার (১ জুন) স্ট্যালিন বলেন, তামিলনাড়ুতে হিন্দি চাপানো মানে, ভিমরুলের চাকে ঢিল মারা৷ কেন্দ্রের শিক্ষা নীতি অনুযায়ী, প্রতিটি স্কুলে তিনটি ভাষা আবশ্যিক ভাবে পড়ানো হবে৷ হিন্দি, ইংরেজি ও সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক ভাষা৷ শুক্রবারই নয়া শিক্ষা নীতির খসড়া ঘোষণা করেছে কেন্দ্র৷

এর আগে কেন্দ্রের শিক্ষানীতির তীব্র সমালোচনা করে ডিএমকে-র রাজ্যসভা সদস্য টি শিবা বলেন, 'তামিলনাড়ুতে হিন্দি রুখতে আমরা যে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে রাজি৷ তামিলনাড়ুতে হিন্দি ভাষা চাপানো মানে সালফারের গোডাউনে আগুন দেওয়া৷ হিন্দি শেখানোর চেষ্টা করা হলে, ছাত্র ও যুবকরা যে কোনও মূল্যে তা রুখবে৷ ১৯৬৫ সাল থেকে হিন্দি-বিরোধী বিক্ষোভই তার স্পষ্ট উদাহরণ৷ হিন্দি-বিরোধী ওই বিক্ষোভ ডিএমকে-ই করেছিল৷ যা এখনও বেঁচে রয়েছে তামিলনাড়ুতে৷

পিপিবিডি/জিএম

তামিলনাড়ু,ভারত,সুপ্রিমো এম কে স্ট্যালিন,হিন্দি-বিরোধী
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত