Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬
  • ||

মোদির শপথ অনুষ্ঠানে ইমরানকে আমন্ত্রণ জানাবে না ভারত

প্রকাশ:  ২৮ মে ২০১৯, ১১:২০
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট icon

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের প্রথম প্রহরেই মোদিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করেছিলেন ইমরান খান। এবার দুই দেশের শান্তি আলোচনায় বসতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। রোববার টেলিফোনে দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হওয়া মোদিকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান ইমরান।

খালিজ টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় পাকিস্তানি জঙ্গি হামলার ঘটনার পরে এই প্রথম টেলিফোনে কথা বললেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী। এর আগে ভারতের লোকসভা নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ট আসন নিয়ে জয়ী হওয়ার মোদিকে টুইটারে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইমরান।

রোববারের কথোপকথনে ইমরান খান বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি, উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির লক্ষ্যে তিনি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে চান ভারতের দ্বিতীয়বার নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিষয়টি জানিয়েছেন।

এ সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, নিজেদের বিশ্বাস বাড়াতে হবে, হিংস্রতা মুক্ত এবং সন্ত্রাসবাদ পরিবেশ তৈরি করতে হবে। পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, উভয় দেশ তাদের জনগণের কল্যাণে একত্রে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে।

এদিকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানানোর জন্য মোদিও ধন্যবাদ জানিয়েছেন পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীকে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, প্রতিবেশীদের অগ্রাধিকার দেওয়ার সরকারি লাইনের কথা মাথায় রেখে প্রধানমন্ত্রী মোদি ইমরানকে মনে করিয়ে দিয়েছেন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াইটা সবার আগে লড়তে হবে দারিদ্র্য দূরীকরণের জন্য।

কিন্তু এত কিছুর পরেও দু'দেশের মধ্যে হয়তো আগের মতো আর স্বাভাবিক সম্পর্ক তৈরি হচ্ছে না। এর যথেষ্ট প্রমাণ পাওয়া গেছে। আগামী ৩০ জুন ভারতের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন নরেন্দ্র মোদি। কিন্তু তার শপথ অনুষ্ঠানে ইমরানকে আমন্ত্রণ না জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত।

৩০ মে রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ গ্রহণ করবেন মোদি। এই অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যেই অতিথি নিমন্ত্রণের তালিকাও প্রায় তৈরি হয়ে গেছে। বিমসটেক গোষ্ঠীভুক্ত ছয় দেশ বাংলাদেশ, মায়ানমার, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, নেপাল ও ভুটানের রাষ্ট্রনেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

এসব দেশের নেতারা ছাড়াও বিশ্বের শক্তিধর দেশের প্রেসিডেন্টদেরও আমন্ত্রণ জানানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। আমন্ত্রিতদের এই তালিকায় নাম রয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের মতো নেতারাও। তারা প্রত্যেকেই মোদির জয়ের পর তাকে ফোন করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। কিন্তু এই তালিকা থেকে বাদ পড়েছে প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

মোদির শপথ গ্রহণে ইমরান খান ডাক পাননি তা পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্রও নিশ্চিত করেছে। ২০১৪ সালে মোদি যখন প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হন তখন সার্ক গোষ্ঠীভুক্ত দেশের নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। সে সময় তৎকালীন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু এবার আমন্ত্রিতদের তালিকা নাম নেই ইমরান খানের।


পিপিবিডি/এসএম

নরেন্দ্র মোদি,ইমরান খান
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত